জন্মের পর থেকে সাত বছর মেয়েকে বন্দি করে রেখেছে মা!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
জন্মের পর থেকে সাত বছর বয়স পর্যন্ত সময়টাতে সব শিশুই থাকে মা-বাবার কোলে। অথচ নিজের মেয়েকে জন্মের পর সাত বছর বয়স পর্যন্ত বন্দি করে রেখেছে মা! তেলাপোকা ও পোকামাকড়ের আবাসস্থল ওই ঘরে সাত বছরে সূর্যের আলো পর্যন্ত দেখেনি শিশুটি! তাকে ভালো খাবার দেয়া হয়নি! এমনকি কথা বলতেও দেয়া হয়নি কারো সঙ্গে!

কল্পনাকেও হার মানানো এই ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। হতভাগা মেয়েটির নাম ড্যানিয়েল ক্রকেট, সংক্ষেপে ড্যানি।

স্থানীয় গণমাধ্যম টাম্পা বে টাইমসে প্রকাশিত শিশু নির্যাতনের একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ২০০৫ সালের ১৩ জুলাই ড্যানির সন্ধান পান প্ল্যান্ট সিটি পুলিশের গোয়েন্দা মার্ক হোলস্টে। ৭ বছর বয়সী ড্যানি তখন হাঁটতে, খেতে এমনকি কথাও বলতে পারত না। তার ওজন ছিল ২০ কেজির মতো এবং দেহের আকার ছিল অদ্ভুত রকমের। তাকে দ্রুতই টাম্পা জেনারেল হসপিটালে নেয়া হয়।

পুলিশ ড্যানির মা মাইকেল ক্রকেটকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশের কাছে দেয়া জবানবন্দিতে তার মা জানান, তিনি একজন বিধবা। তাই তার মেয়েকে সব বিপদ থেকে রক্ষা করতে তিনি এমনটি করেছেন।

২০০৭ সালে তাকে দত্তক নেন বার্নি ও লিয়েরো দম্পতি। গত সেপ্টেম্বরে তার বয়স হয়েছে ১৯ বছর। কিন্তু এখনো তার আচরণের কোনো পরিবর্তন ঘটেনি।

দক্ষিণ ফ্লোরিডা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশুরোগ চিকিৎসাবিষয়ক পরিচালক ড. ক্যাথলিন আর্মস্ট্রং বলেন, ৮৫ শতাংশ শিশুর মানসিক বিকাশ ঘটে পাঁচ বছর বয়সের মধ্যে। ড্যানিকে জন্মের পর সাত বছর বয়স পর্যন্ত আটকে রাখার কারণে তার বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ ঘটেনি। সে এখন পরিবেশগতভাবে একজন প্রতিবন্ধী।

 

 

২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:৩২:৩১