গুরুর আদেশে স্বামীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে আপত্তি স্ত্রীর, এরপর...!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
প্রতীকী ছবি


গুরুর আদেশে অনেক অনুরোধের পরেও স্বামীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে রাজি না হওয়ায়, অবশেষে স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের মামলা করলেন ৩০ বছরের এক ব্যক্তি। গত বুধবার তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ মঞ্জুর করে ভারতের বান্দ্রা আদালত। শুনানির সময় সেই তরুণী জানান, বিকৃত যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার দাবি জানাত তার স্বামী। সে কারণেই স্বামীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে চাননি তিনি।  

জানা গেছে, ২০১১ সালে বিয়ে হয় ওই দম্পতির। সেই ব্যক্তি তার পিটিশনে জানান, বিয়ের রাতে স্ত্রীর আচরণে মুগ্ধ হয়েছিলেন তিনি। কারণ কন্ডোমের প্যাকেট নিয়ে এসেছিলেন তার স্ত্রী। কিন্তু চার মাস পর সেই স্ত্রীর আচরণেই হতবাক হয়ে যান। গুরুর পরামর্শ মেনে ঘনিষ্ঠ হতে আপত্তি জানান তাঁর স্ত্রী। এমকী আগামী পাঁচ বছর তিনি কোনও সন্তান চান না বলেও স্বামীকে সাফ জানিয়ে দেন।  

সেই তরুণীর বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ, তিনি নাকি স্বামীর ই-মেইল হ্যাক করে তার বন্ধুদের কাছে আপত্তিকর বার্তা পাঠাতেন। শ্বশুরবাড়ির লোকদনের সঙ্গেও নিত্য ঝগড়া অশান্তি করতেন তিনি।

এদিন রায় দানের সময় বিচারপতি এসএ মোরে জানান, ‘‘স্বামীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত না হওয়ার কোনও জোরাল দাবি জানাতে পারেননি স্ত্রী। তার আচরণ মানসিক নির্যাতন করার সামিল। ’’ সূত্র: কলকাতা২৪


০৫ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:৫২:০২