একসঙ্গে মরার অভিপ্রায়, স্ত্রীকে কামড়ে দিলেন সাপে কাটা স্বামী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
সাপের কামড়ে যন্ত্রণায় কাতর স্বামী কামড় দিলেন স্ত্রীর হাতে। দু’জনকেই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে সেখানে স্বামীর মৃত্যু হয় এবং প্রাথমিক চিকিতৎসার পর স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রশ্ন হচ্ছে সাপে কামড়ে দেয়ার পর স্ত্রীকে কেন কামড়ে দিলেন স্বামী? ভারতের বিহারের বীরসিংহপুর গ্রামের বাসিন্দা আমিরি দেবী জানান, গত শনিবার (১০ জুন) রাতে খাওয়াদাওয়ার পর স্বামী শঙ্কর রাই এবং তিনি শুতে গিয়েছিলেন। একটু পরে ঘুমিয়েও পড়েন তিনি। হঠাৎ স্বামীর গোঙানিতে ঘুম ভাঙে তাঁর। আমিরি দেবী উঠে দেখেন স্বামীকে সাপে কামড়েছে। বিষের যন্ত্রণায় বিছানাতেই ছটফট করছেন। সেই সময় আমিরি দেবীকে শঙ্কর বলতে থাকেন, স্ত্রীকে ছাড়া তিনি মরেও শান্তি পাবেন না! তাই একসঙ্গে 'মরা'র অভিপ্রায়ের কথা জানান স্ত্রীকে। আমিরি দেবীও স্বামীর কথায় রাজি হয়ে যান। এর পরেই শঙ্কর স্ত্রীর হাতের কব্জিতে কামড়ে দেন। ভাবেন, এতে তাঁর শরীরের বিষ স্ত্রীর দেহে স্থানান্তরিত হবে এবং আমিরি দেবীর মৃত্যু হবে। এদিকে সাপে কাটা স্বামীর কামড় খেয়ে আমিরি দেবী জখম হয়ে অসুস্থ বোধ করতে থাকেন। এরপর তার চিৎকারে পরিবারের বাকিরা ছুটে এসে দ্রুত ওই দম্পতিকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে শঙ্করের মৃত্যু হয়। আমিরি দেবী প্রাথমিক চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন। পরে তিনি জানিয়েছেন, শঙ্কর তাকে খুবই ভালবাসতেন। তাই একসঙ্গে 'মরা'র কথায় সায় দেন। সাপে কাটা রোগীর কামড়ে কি কেউ মারা যেতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এমনটা হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। কারণ সাপে কাটা রোগীর দাঁতের মাধ্যমে বিষ অন্য দেহে প্রবেশ করতে পারে না। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

 

 

 

১৫ জুন, ২০১৭ ২৩:৪৫:৪৭