পূর্বপশ্চিমবিডি ডটকম: আনন্দ আড্ডায় শুভ উদ্বোধন
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
কবিতা, কথা ও গানের আনন্দ আড্ডায় উন্মোচিত হলো নিউজ পোর্টাল ‘পূর্বপশ্চিমবিডি ডটকম’।  বিখ্যাত সাহিত্যক-লেখক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় ও খ্যাতিমান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে ঘিরে গত ২৪ নভেম্বর মঙ্গলবার গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে আনন্দ আড্ডায় শুভ উদ্বোধন হয় পোর্টালটির।

রাত ১০ টায় বরেন্য অতিথিগণ ও পূর্বপশ্চিম পরিবারকে নিয়ে পোর্টালের ফাস্ট লুক এবং লোগো উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী  হাসানুল হক ইনু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ  প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, জেষ্ঠ্য সাংবাদিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী, পূর্বপশ্চিমবিডির প্রধান সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান, পূর্বপশ্চিম ক্রিয়েটিভস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সারওয়ার রহমান প্রিন্স ও পোর্টালটির নির্বাহী সম্পাদক দীপু হাসান।

 উপস্থিত ছিলেন পোর্টালের উপদেষ্টা প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী সেলিম চৌধুরী,  ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাবেক পরিচালক ও কলামিস্ট খুজিস্তা নূর ই নাহারীন মুন্নী, ভ্রমণ সাহিত্যিক শাকুর মজিদ, রাকসুর সাবেক পত্রিকা সম্পাদক এবিএম জাকিরুল হক টিটন। আরও তিন উপদেষ্টা  শিল্পী ধ্রুব এষ, চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী ও রোকেয়া প্রাচী ঢাকার বাইরে থাকায় উপস্থিত হতে পারেন নি। শারীরীক অসুস্থতার কারণে উপস্থিত হতে না পারলেও পূর্বপশ্চিমবিডি ডটকমের জন্য শুভ কামনা পাঠিয়েছেন কলকাতার প্রবীন সাংবাদিক সুখরঞ্জন দাস গুপ্ত।

এর আগে সন্ধ্যা ৭ টা থেকে অতিথিরা আসতে শুরু করেন। ৮টার মধ্যেই কমিউনিটি হলটি পরিণত হয় কবি, সাংবাদিক, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী ও শিল্পসংস্কৃতির বরেন্য মানুষদের মিলন কেন্দ্রে। হলরুম ‍জুড়ে চলতে থাকে ছোট ছোট আড্ডা, একে অপরের সঙ্গে কুশল বিনিময়। এর মধ্যে খ্যাতিমান আবৃত্তিকার শিমুল মুস্তাফার কন্ঠে কবি শামসুর রাহমানের ‘স্বাধীনতা তুমি’ কবিতার মধ্য দিয়ে শুরু হয় আনুষ্ঠানিকতা। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন পোর্টালের উপ সম্পাদক শরীফ তালুকদার। সঙ্গে ছিলেন জ্যোতি মজুমদার।

প্র্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু বলেন, আমাদের এখন সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সৎ ও নির্ভীক সাংবদিকতার প্রয়োজন। সেখানে নতুন এ নিউজ পোর্টালটি এই আকাঙ্খা পূরণ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।  বিচার বুদ্ধি বিবেকের ওপর দাঁড়িয়ে আমরা এ যুদ্ধে জয়ী হবোই।

আমি নিরপেক্ষ নই। একাত্তরে যুদ্ধে গেছি। এখন ক্ষোভ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছি। এই মুহুর্তে যুদ্ধের মাঠ থেকে এ এসেছি। আবার ফিরে যাবো। জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাসবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও দানবীয় শক্তির বিরুদ্ধে আমি মানবতার পক্ষে, গণবতন্ত্রের পক্ষে, মানুষেল অধিকারের পক্ষে।

অনুষ্ঠানের মধ্যমনি ছিলেন তারা দু’জনই- শীর্ষে্ন্দু মুখোপাধ্যায় ও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তারা কেবল নিউজ পোর্টালের জন্য আশীর্বাণীতেই নয়, পথ দেখান মানুষেরি মুক্তির। ভালবাসা ও আবেগঘন বক্তব্যে উঠে আসে দুই বাংলার নানা দিক, নানা বিষয়। 

শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেন, সভ্য ও সুন্দর রাষ্ট্রের জন্য প্রয়োজন বাক স্বাধীনতা। কিন্তু সবার জন্য বাক স্বাধীনতা নয়। গভীর বোধ ও বিবেক সম্পন্ন মানুষের জন্যই বাক স্বাধীনতা। তবেই কেবল মানুষের ও রাষ্ট্রের কল্যান সম্ভব।

খ্যাতিমানে এই লেখক গণমাধ্যম প্রসঙ্গে বলেন, এখন আর সাংবাদিকরা স্বাধীন নয়। স্বাধীন সংবাদপত্রের মালিকরা। তারা যেমন চান, তেমন সংবাদই প্রকাশ হয়। এই ধারা অব্যাহত থাকলে মানুষের যথার্থ কল্যান নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে।

অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেন, মুদ্রিত কাগজ বের করতে হলে বৃক্ষ নিধন করতে হয়, প্রতিদিনেই হচ্ছে। এটি পরিবেশ জন্য হুমকি। সেখানে অনলাইন পরিবেশবান্ধব ও এই সময়ের অন্যতম চাহিদা।  সময় এসেছে অনলাইন সংবাদপত্রের।

বাংলাদেশের প্রতি তার গভীর প্রেম ও মুগ্ধতা প্রকাশ করে আবেগঘণ কন্ঠে এই খ্যাতিমান লেখক বলেন, ভারতবর্ষ যদি কখনো আামাকে তাড়িয়ে দেয় তা হলে বাংলাদেশ আমাকে আশ্রয় দেবে, ফিরিয়ে দেবে না।  

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, পোর্টালটির (পূর্বশ্চিমবিডি ডটকম) নামের মধ্যেই বাংলা ভাষাভাষী মানুষকে সম্মান করা হয়েছে। পোর্টালের সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান তার বক্তব্যে যে উ্চ্ছ্বাস ও আকাঙ্খা প্রকাশ করেছেন, আমার মনে হয় এই পোর্টাল থেকে একদিন  পশ্চিমবঙ্গও স্ফুলিঙ্গ খুঁজে পাবে। আলোর পথ দেখবে বাংলাভাষাভাষী সব মানুষ।

জুনাইদ আহমদ পলক বলেন, বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তিতে সারাবিশ্বে নিজেদের সাক্ষর রেখেছে। পূর্বপশ্চিম বিডি ডটকম এই সাফল্যকে আরো এগিয়ে নেবে। প্রাধান্য পাবে দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র ও মানুষ। তিনি আরো বলেন, দেশে ৫ কোটি ৬০ লাখ মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে এবং দু’কোটিরও বেশি মানুষ স্মাট ফোন ব্যবহার করেন। সরকার গত ছয় বছরে তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লব ঘটিয়েছে। এই পোর্টালটি সেই সুফল নিয়ে শুধু পূর্ব ও পশ্চিমই নয়, উত্তর দক্ষিন- সব দিক জয় করবে।

ব্যারিস্টার রফিক উল বলেন, পূর্বপশ্চিম আমাদের সবার কথা বলবে। কোনও বিশেষ গোষ্টী বা দলের হবে না। প্রধান সম্পাদকের সেই প্রতিশ্রুতির প্রতিফলনের মধ্য দিয়ে এটি সবার প্রিয় হয়ে উঠবে।

সাংদিক গোলাম সারওয়ার বলেন, প্রিন্ট মিডিয়াতে পীর হাবিবুর রহমান যে অনবদ্য সাক্ষর রেখেছেন তা এখানেও রাখবেন। কারণ সবসময় তার কাজে একটা স্বকীয়তা ও ব্যতিক্রমী চিন্তার প্রতিফলন দেখা যায়। এখানেও তার ব্যতিক্রম হবে না। তার হাত ধরে পোর্টালটি এক নতুন  পথ দেখোবে আমাদের।   

প্রবীন সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধা সালেহ চৌধুরী বলেন, চলার পথে হনুমানের হাতছানি থাকে অনেক। অনেকের মতো এখানেও যেন কোনও পথভ্রষ্টের ঘটনা না ঘটে- সেই প্রত্যাশাই করি।

আবৃত্তির পর স্বাগত বক্তব্যে প্রধান সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান পোর্টালটি নিয়ে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা তুলে ধরেন এবং সবার সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, সত্য প্রকাশে  কোন আপোষ নয়। আমরা সাদাকে সাদা ও কালোকে কালোই বলবো। নিরপেক্ষ সংবাদ বলে কিছু নেই। যা সত্য, তাই-ই সংবাদ। আমরা যে কোন কিছুর বিনিময়ে সে সত্যই তুলে ধরবো। কারো কাছে মাথা নত করিনি, করবোও না।

পূর্ব পশ্চিমকে কিভাবে দেখতে চান- সে বিষয়ে পরামর্শ মূলক বক্তব্য রাখেন ব্যরিস্টার নাজমুল হুদা সহ উপস্থিত বিশিষ্টজনেরা। তারা পোর্টালের জন্য শুভবাণী দেন।

আড্ডায় উপস্থিত ছিলেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, সাবেক তথ্য মন্ত্রী অধ্যাপক আবু সায়ীদ, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, এফবিসিসিআই এর সাবেক সভাপতি মীর নাসির হোসেন, অসীম কুমার উকিল, সংসদ সদস্য অপু উকিল, আওয়ামীলীগ নেতা শফিক আহমদ, সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক, ঢাকা (উত্তর) এর মেয়র আনিসুল হক, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এনামুল হক শামীম।  তাজ উদ্দিন আহমেদের ছোট কন্যা মাহজাবিন, ব্যারিস্টার তানজীব উল ইসলাম, সাবেক ছাত্র নেতা আখতারুজ্জামান, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ হেল কাইয়ুম। এসেছেন সাংবাদিক নাঈমুল ইসলাম খান, মনজুরুল আহসান বুলবুল, সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, জলিল ভুঁইয়া, মনজুরুল ইসলাম, নঈম নিজাম,প্রণব সাহা,  মিথিলা ফারজানা, সামিয়া রহমান, ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি লাকী আক্তার সহ অনেক বিশিষ্টজন।

শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এফবিসিসিআই এর সাবেক সভাপতি মীর নাসির হোসেন, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি সি এম তোফায়েলে সামি, এসিআইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আলমগীর, আইবিএস টেকনোলজি লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক মাহমুদুল হক শামীম, ইউনাইটেড এভিয়েশনের সিইও মোহাম্মদ আলী, মেট্টোনেটের সিইও সৈয়দ আলমাস কবির। শিক্ষাবিদদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, বিএসবি গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন এম  কে বাশার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক রোবায়েত ফেরদৌস।  এসেছেন সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদ। সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম , লায়লা হাসান, পীযুষ বন্দোপাধ্যায়, জয়শ্রী কর জয়া,  কবি অসীম সাহা ও অঞ্জনা সাহা, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নূতন, গীতিকার শহীদুল্লাহ ফরায়েজী, অরুনা বিশ্বাস,  মৌটুসী বিশ্বাস, কথা সাহিত্যক নাসরিন জাহান, অভিনেতা নীরব ও অমৃতা খান, মেহের আফরোজ শাওন, মডেল ও অভিনেত্রী নিপুন। রাত ১০ টায় লোগো উন্মোচনের পর শুরু হয় গান। হাসন রাজা ও রাধারমনের গান পরিবেশন করেন সেলিম চৌধুরী ও তুলিকা ঘোষ চৌধুরী।

সাংবাদিকতার দীর্ঘ পথ হাঁটা পীর হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একদল অভিজ্ঞ ও তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে নিউজ পোর্টাল ‘পূর্বপশ্চিমবিডি ডটকম’ ১ ডিসেম্বর মিনিটে পাঠকদের জন্য উন্মোচন হচ্ছে।

পোর্টালের ওয়েব ঠিকানা -www.purboposhchimbd.com

-- প্রেস বিজ্ঞপ্তি

২৬ নভেম্বর, ২০১৫ ২২:৪১:০৬