সেপ্টেম্বরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের নির্বাচন
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মেম্বার্স লাউঞ্জে প্রেস ক্লাব কমিটির অতিরিক্ত সাধারণ সভায় আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। নতুন নির্বাচিত কমিটি দায়িত্ব গ্রহণের আগ পর্যন্ত গঠণতন্ত্র অনুযায়ী বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটিকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার অনুমোদন দেয়া হয়।

ক্লাব পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে,সভার প্রথম পর্বের সভাপতিত্ব করেন সিনিয়র সহ-সভাপতি বখতিয়ার রাণা ও দ্বিতীয় পর্বে সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনাক হোসেন। প্রেস ক্লাবের সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ অসুস্থতার জন্য সভায় উপস্থিত হন নি বলে জানা গেছে। সভায় সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ সাধারণ সম্পাদকের রিপোর্ট পেশ করেন। সভায় তিনটি প্রস্তাব পাশ করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে আগামী নির্বাচন পরিচালনার জন্য গ্রহণযোগ্য ব্যাক্তিদের নিয়ে একটি নির্বাচিত কমিটি গঠন করা হবে। ওই কমিটি দ্রুত নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণা করবে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্যরা তাদের ভোটের অধিকারকে কোনোভাবেইে ছিনিয়ে নিতে দেবে না। নতুন নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা কমিটি দায়িত্ব গ্রহণ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন সদস্যরা।

সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ তার লিখিত রিপোর্টে সুন্দর নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত কমিটি যাতে আবার গণতান্ত্রিকভাবে ক্লাব পরিচালনা করতে পারেন তার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, ষাট বছরের ঐতিহ্যলালিত এবং গণতান্ত্রিকভাবে পরিচালিত এই ক্লাবের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্যকে একটি মহল ভুলুন্ঠিত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এই অপচেষ্টা ক্লাব সদস্যরা কোনোভাবে বাস্তবায়ন হতে দেবে না। 

সভায় মিলনায়তনসহ সব কক্ষ জোরপূর্বক বন্ধ রাখায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। বিকাল ৪টা থেকে ইফতার পর্যন্ত সভার কার্যক্রম চলে। সভায় বক্তব্য রাখেন কবি আল মুজাহিদী, দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, দৈনিক দিনকালের সম্পাদক ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী। আরও বক্তব্য রাখেন ফরিদ হোসেন, রুহুল আমিন গাজী, শওকত মাহমুদ, এম এ আজিজ, ছড়াকার আবু সালেহ, আবদুস শহিদ, মুন্সী আবদুল মান্নান, বাকের হোসাইন, মাসুমুর রহমান খলিলি, একেএম মহসীন, খুরশিদ আলম, কাজিম রেজা, রফিক হাসান, আবুল কালাম মানিক, শাহাদাত হোসেন খান, আসাদুজ্জামান, আসাদ, খন্দকার গোলাম আজাদ, হারুন-অর রশিদ প্রমুখ।


 

 

২৮ জুন, ২০১৫ ২৩:০১:২২