যে ১০ লক্ষণ দেখে বুঝবেন আপনার সঙ্গীর একাধিক প্রেমিকা আছে!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
মানুষের একাধিক প্রেমিকা থাকতে পারে এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। সম্পর্কে এমন প্রতারণা অনেক আগে থেকে চলছে। এরপরেও একজন নারী সহজে তার প্রেমিককে অবিশ্বাস করেন না। প্রেমিক অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে আছেন কি না? তার শক্ত প্রমাণ না পাওয়া পর্যন্ত তিনি প্রেমিকের গুণগান গেয়ে যান। আপনি কিন্তু কয়েকটি লক্ষণ দেখেই বুঝে ফেলতে পারেন আপনার প্রেমিকের একাধিক সম্পর্ক রয়েছে। দেখে নিন, লক্ষণগুলো আপনার সঙ্গীর সঙ্গে মিলছে কিনা?

১) যখন দেখবেন আপনার প্রেমিক আপনাকে সময় দিতে পারে না। অনেক সময়েই দেখা যায়, আপনি দেখা করতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যাচ্ছেন। অনেকটা উদাসীনতা দেখচ্ছেন।

২) আপনার সঙ্গে দেখা করার বদলে অন্য কিছু করছেন তিনি, কী করছেন সেটা আবার আপনাকে জানাচ্ছেন না! আপনি জিজ্ঞেস করলে এড়িয়ে যাচ্ছেন, জানার জন্য চাপাচাপি করলে দায়সারা উত্তর। কোনো একটা জবাব দিয়ে দিচ্ছেন। দেখবেন তিনি প্ল্যান পরিবর্তন করতে অভ্যস্ত। অনেক সময়েই আপনার সাথে দেখা করার কথা থাকলেও তিনি তাড়াতাড়ি করেই চিন্তা ভাবনা পরিবর্তন করছেন। সমস্যা গুলো শুনে আপনার কাছে হাস্যকর মনে হতে পারে।  

৩)  যে চিন্তা-ভাবনা পরিবর্তন তা নয়, অনেক সময়ে তিনি তাড়াতাড়ি করেই আপনার সঙ্গে দেখা করতে চাইতে পারেন। এটা কীসের লক্ষণ? হয়তো তার অন্য কোনো প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল। ওই প্রেমিকা পরিবর্তন করায় আপনার সাথে দেখা করতে চাচ্ছেন তিনি।

৪) তিনি আপনাদের সম্পর্ককে কোনো নাম দিতে চান না। সম্পর্কের প্রথম দিকে এ বিষয়টি স্বাভাবিক। কিন্তু সম্পর্ক বেশ কিছুদূর অগ্রসর হওয়ার পরেও তিনি যদি দাবি করেন আপনারা ‘শুধুই বন্ধু’, তিনি সম্পর্কটাকে ‘জটিল’ করতে চান না, বা আপনাকে ‘স্বাধীনতা’ দিতে চাচ্ছেন, তাহলে হয়তো তার আরও প্রেমিকা আছে এবং তিনি শুধু আপনার সঙ্গে জড়িয়ে যেতে চান না।

৫ ) তিনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমন সক্রিয় না থাকেন, তাহলে একটু লক্ষ্য রাখুন। অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন না তেমন। তবে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম থাকার পরেও তিনি তেমন একটা পোস্ট করেন না। যাতে প্রেমিকারা তাদের সাথে তোলা সেলফি পোস্ট করতে চাপাচাপি করতে না পারে, সে কারণেই হয়ত তিনি পোস্ট কম করেন।

৬ )  আপনি তার বাসায় বা অফিসে আসুন। কারণ, আপনি সেখানে উপস্থিত হলে দেখা যাবে পরিবারের কেউ, অথবা সহকর্মী তার অন্য প্রেমিকার কথা বলে দিয়েছে। এমনকি দুই প্রেমিকা একসঙ্গে সেখানে উপস্থিত হতে পারে। এ কারণে তিনি খুব শক্তভাবে তার বাসায় বা অফিসে যোগাযোগ করতে নিষেধ করে দেন।

৭) ঘণ্টার পর ঘণ্টা তাকে খুঁজে পাওয়া যায় না। তিনি হয়তো পুরো সপ্তাহ আপনার সাথে টেক্সট চালাচালি করে যাচ্ছেন। অথচ শুক্র-শনিবারে তাকে খুঁজেই পাওয়া যায় না। কোনোভাবেই যোগাযোগ করা যায় না। আবার তিনি আগের মতোই কথা বলে যাচ্ছেন। এমনটা হলে খটকা লাগাই স্বাভাবিক।

৮)  আপনার নিজের অনুভূতিকে প্রাধান্য দিন। আপনার কি মনে হচ্ছে তার কোনো একটা সমস্যা আছে?  তিনি আপনার সঙ্গে বিশ্বস্ত নন? এমন মনে হলে তার সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলুন এবং তাকে জানান, আপনি এমন খেলো একটা সম্পর্কে থাকতে রাজি নন।

 

০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫৩:০০