ভুলেও এই কয়েকটি খাবার ফ্রিজে রাখবেন না
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট


ব্যস্ততার ফাঁকে কোনও মতে রান্না করে ফ্রিজে ঢুকিয়ে দেওয়াটাই রেওয়াজ এখন। প্রতি বেলা রান্না করার সময় কই? তাই টাটকা খাবার খাওয়ার সৌভাগ্যও হয়না। তবুও সময় বাঁচাতে আর খাবার সতেজ রাখতে ফ্রিজের জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু কিছু খাবার আছে, কখনই যা ফ্রিজে রাখা উচিত নয়। জেনে নিন কোন কোন খাবার ফ্রিজে রাখা একেবারেই উচিত নয়-

১. মধু

এই খাবারটি ফ্রিজে রাখলে এর গুণাগুণ একেবারে নষ্ট হয়ে যায়। সেই সঙ্গে মধুটা এতটাই শক্ত হয়ে যায় যে খাবার উপযোগী থাকে না। তাই ভুলেও এই খাবারটি ফ্রিজে রাখবেন না। বরং সূর্যের আলো পরে না, এমন জায়গায় রাখুন মধুর শিশি। তাহলে আর এই নিয়ে কোনও চিন্তাই থাকবে না।

২. পাঁউরুটি

ভুলেও পাঁউরুটি ফ্রিজে রাখবেন না। বরং একটা বাক্স কিনে এনে তাতে রাখুন। এভাবে না রাখলে পাঁউরুটিকে বেশি দিন তাজা রাখতে পারবেন না। সেই সঙ্গে এর গুণাগুণ এবং স্বাদও খারাপ হয়ে যাবে।

৩. মশলা

সাধারণত ফ্রিজে রাখার প্রয়োজন পড়ে না মশলাকে। তবু অনেকে মনে করেন এমনটা করলে নাকি দীর্ঘদিন পর্যন্ত মশলা তাজা থাকে। এই ধারণা একেবারেই ভুল। বরং ঠান্ডা জায়গায় মশলা স্টোর করলে এর ভিতরে থাকা ভোলাটাইল তেল শুকিয়ে যায়। ফলে স্বাদ কমতে শুরু করে।

৪. লেবু

ফ্রিজে রাখলে কয়েকদিনের মধ্যে লেবু শুকিয়ে যায়। সেই সঙ্গে এর মধ্যে থাকা একাধিক স্বাস্থ্যকর উপাদানের কার্যকারিতাও কমতে শুরু করে। তাই লেবুর গুণাগুণকে কাজে লাগিয়ে শরীরকে রোগমুক্ত রাখতে এবার থেকে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখুন এটিকে।

৫. তরমুজ

অনেকে ভাবেন তরমুজ ফ্রিজে রাখলে ভাল থাকে। এই ধারণা কিন্তু একেবারেই ঠিক নয়। কারণ এই ফলটিকে ঠান্ডায় রাখা মাত্র নষ্ট হতে শুরু করে। সেই সঙ্গে শুকিয়ে যায় এর ভিতরের জলও। তবে একবার তরমুজ কেটে ফেললে দুদিন পর্যন্ত সেটিতে ফ্রিজে রাখা যেতে পারে।

৬. পেঁয়াজ

এই সবজিটিকে ফ্রিজে রাখলে পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাবে। এর মধ্যে থাকা বেশ কিছু কেমিক্যালের রদবদল ঘঠবে। ফলে ফ্রিজে রাখা পেঁয়াজ খেলে শরীর অসুস্থ হতে বাধ্য।

৭. টমেটো

বাজার থেকে কিনে আনা ব্যাগ ভর্তি টমেটো নষ্ট করে দিতে চান কি? না তো! তাহলে ভুলেও এই সবজিটি ফ্রিজে রাখবেন না। আসলে ঠান্ডা জায়গায় রাখলে টমাটোর সব উপকারিতা নষ্ট হয়ে যায়। সেই সঙ্গে ধীরে ধীরে এটি খারাপ হতেও শুরু করে।

৮. রসুন

দীর্ঘদিন যদি রসুনকে ভাল রাখতে চান, তাহলে ভুলও ফ্রিজে রাখবেন না এই সবজিটিকে। আসলে ঠান্ডা জয়গায় রাখলে রসুনের আয়ু কমে যায়। সেই সঙ্গে এর স্বাদও নষ্ট হয়ে যেতে শুরু করে। তাই তো এবার থেকে একটা কাগজের ব্যাগে রসুনকে স্টোর করে রাখবেন। যখন প্রয়োজন পরবে, তখন কেটে নেবেন।

৯. কফি

অনেকেই কফির বোতল বা প্যাকেট ফ্রিজে রেখে থাকেন। এমনটা আর করবেন না। কারণ অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে কফি পাউডারের মধ্যে থাকা আর্দ্রতা কমে যেতে শুরু করে। ফলে কফির স্বাদ একেবারে খারাপ হয়ে যায়।

১০. বাদাম

ফ্রিজে বাদাম রাখার অভ্যাস এখনই ত্যাগ করুন। কারণ এমনটা করলে এর উপকারিতা কমে যায়। সেই সঙ্গে বাদামের স্বাদ এবং মুচমুচে ভাবও নষ্ট হয়ে যেতে শুরু করে। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


২৮ আগস্ট, ২০১৭ ২১:২৭:২৪