রমজানে ব্রিটেনে মুসলিম শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ আয়োজন
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
অভিভাবকরা বলছেন, দীর্ঘ সময় ধরে রোজার রাখার নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে পরীক্ষার ওপর
ব্রিটেনের মুসলিম শিক্ষার্থীরা যাতে রমজান মাসে রোজা রেখেও ভালভাবে পরীক্ষা দিতে পারে সেজন্য সরকার পরীক্ষার সময়সূচীতে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। সরকার বলছে, আগামী গ্রীষ্ম মৌসুম অর্থাৎ জুন মাস থেকেই এই নতুন সময়সূচী কার্যকর হবে। সরকারের পরীক্ষা বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, জিসিএসই এবং এ-লেভেল্স পর্যায়ে যে বিষয়গুলিতে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বেশি, যেমন ইংরেজি এবং গণিত, সেখানে মুসলমান শিক্ষার্থীরা আগেভাগে পরীক্ষা দিতে পারবে।

এমনকি মুসলিম ছেলেমেয়েরা যাতে রোজা রেখে দিনের গোড়ার দিকেই পরীক্ষাটা দিয়ে ফেলতে পারে সেই ব্যবস্থাও করা হয়েছে বলে তারা জানান। সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, স্কুলের ছাত্র, শিক্ষক এবং অভিভাবকদের তরফে দাবি ওঠার পরই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অভিভাবকরা প্রায়শই অভিযোগ করে থাকেন যে ব্রিটেনে রোজার দিনের মেয়াদ দীর্ঘ, ১৮-২০ ঘণ্টাও হয়।

এত লম্বা সময় ধরে রোজা রাখার ফলে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা প্রায় অসুস্থ হয়ে পড়ে। ফলে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে পরীক্ষার ওপর। ব্রিটেনে স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে শতকরা ৮.১ ভাগ মুসলমান। পরীক্ষার সময়সূচীকে সামনে এগিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ব্রিটেনের প্রধান শিক্ষকদের সংগঠন অ্যাসোাসিয়েশন অফ স্কুল অ্যান্ড কলেজ লিডার্স। এর সভাপতি ম্যালকম ট্রব বলছেন, মুসলমান শিক্ষার্থীরা যাতে ভালভাবেই রোজার মাসটি পালন করতে পারে সে জন্য আমরা তৎপর।

০৮ জানুয়ারি, ২০১৬ ০৮:৫৭:৩৯