শিশুদের যৌন উত্তেজক ভিডিও প্রকাশ, ইউটিউব তারকার কারাদণ্ড
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর একটি আদালত এক ইউটিউব তারকার ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে৷ তার বিরুদ্ধে অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে শিশুদের যৌন উত্তেজক ভিডিও তৈরি করতে উৎসাহিত করার অভিযোগ রয়েছে৷ অস্টিন জোনস গান গেয়ে ভিডিও প্রস্তুত করে অনলাইনে প্রকাশ করতেন৷ তার ভক্তরা মূলত টিনএজ মেয়ে৷

২০১৭ সালে অস্টিনকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ ২০১৯ সালের শুরুতে তিনি এই ঘটনায় তার অপরাধ স্বীকার করেন৷ ছয়টি মেয়ের কাছ থেকে এ ধরনের ভিডিও আনার কথা অস্টিন স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন মামলার আইনজীবী৷ আরো ৩০ জন মেয়েকে অন্যদের কাছ থেকে এমন ভিডিও আনতে বলার কথাও স্বীকার করেছেন অস্টিন৷ 

শিশুদের জন্য ইউটিউব

লিটল বেবি বাম

একেবারে শিশুদের জন্য এই চ্যানেলটি৷ নার্সারি রাইম নিয়ে শিক্ষণীয় ও মজার সব ভিডিও এরই মধ্যে খুব জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে৷ এর ভিডিওগুলো এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৫শ’ কোটি বারেরও বেশি দেখা হয়েছে৷ শুক্রবার এক ফেডারেল আদালতের বিচারক ২৬ বছর বয়সি এই ইউটিউবারকে ১০ বছরের সাজা দিয়েছেন৷ অপরাধের প্রকৃতি অনুযায়ী ৫ থেকে ২০ বছরের সাজার বিধান রয়েছে আইনে৷

অস্টিনের পাঠানো বিভিন্ন টেক্সট ম্যাসেজের সূত্র ধরে আইনজীবীরা তার অপরাধ প্রমাণ করতে সমর্থ হয়েছেন৷ তাঁরা জানিয়েছেন, অস্টিন অডিশনের কথা বলে মেয়েদের এমন কাজে প্রলুব্ধ করতেন৷

আদালতে জমা দেয়া প্রমাণের একটিতে দেখা যায়, ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে ১৪ বছরের এক মেয়েকে জোনস বলছেন, ‘‘আমি শুধু তোমাদের সাহায্য করার চেষ্টা করছি৷ আমি জানি তোমরা নিজেদের আমার সবচেয়ে বড় ভক্ত প্রমাণের চেষ্টা করছো৷ এবং আমিও চাই না, অন্য কাউকে খুঁজে নিতে৷''

আইনজীবীরা জানান, ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার ব্যবহার করে ১৪-১৫ বছর বয়সি মেয়েদের সঙ্গে অস্টিনের এমন আলাপচারিতার তথ্য কর্তৃপক্ষই ‘ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেন'-কে জানিয়েছে৷

অস্টিনের আইনজীবী অবশ্য সাজা কমিয়ে পাঁচ বছর করার আবেদন জানিয়েছিলেন৷ আদালতকে তিনি বলেন, ‘‘অস্টিন নিজেই ছয় বছর থেকে ১০ বছর বয়স পর্যন্ত নিজের বাবার কাছে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে৷ সে ছোট, ভীত এবং অসহায় ছিল৷''

আদালতে তাঁরা দাবি করেন, অস্টিন বিষন্নতা ও অন্যান্য মানসিক সমস্যায় ভুগছেন৷ -ডয়েচেভেলে

 

১২ মে, ২০১৯ ০১:১৫:৩১