জীবন দিতে রাজি কিন্তু আমি বাংলা ভাগ করতে দেবো না: মমতা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বক্তব্য রাখছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, "আমি জীবন দিতে রাজি কিন্তু বাংলা ভাগ করতে দেবো না।" লোকসভা নির্বাচন উপলক্ষে তিনি আজ (শনিবার) পশ্চিমবঙ্গের হাড়োয়ায় দলীয় সমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় ওই মন্তব্য করেন।

মমতা বলেন, "আমরা সবাই মিলেমিশে একসাথে থাকব। এটাই তৃণমূল জোড়াফুলের আদর্শ। ওরা (বিজেপি) অনেক টাকা নিয়ে নেমেছে, অনেক টাকা বিলোচ্ছে। ওরা আবার এসে এখানে সভা করে মিথ্যে কথা বলবে, উত্তেজনা ছড়াবে, প্ররোচনা দেবে, হিন্দু মুসলিমে ভাগাভগি করবে। ওদের মিথ্যে ফাঁদে পা দেবেন না। ওরা দেশের সর্বনাশ করে দিয়েছে, ওদের নেতাদের দেখে মানুষ শ্রদ্ধা করে না, মানুষ ভয় পায়!"

তিনি জাতীয় নাগরিকপঞ্জি প্রসঙ্গে বলেন, "এনআরসি করে অসমে ২২ লাখ হিন্দু বাঙালি, ২০ লাখ মুসলিমের নাম বাদ দিয়েছে। আমরা বাংলায় এনআরসি করতে দেবো না। নাগরিক বিলের নাম করে ওরা মানুষকে বিদেশি বানিয়ে দেবে!"

মমতা প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, "গুণ্ডামি আর দাঙ্গা করে ওনার হাতেখড়ি। ওনার হাতে মানুষের রক্ত লেগে আছে। অটলজি (সাবেক প্রধানমন্ত্রী) ওনাকে রাজধর্ম পালন করার কথা বলেছিলেন। উনি ইতিহাস বদলে দিয়েছেন, সংবিধান বদলে দিয়েছেন। সব প্রতিষ্ঠান, মিডিয়াকে কন্ট্রোল করে নিয়েছেন।"

মমতা বলেন, "আচমকা উনি নোট বাতিল করে দিলেন। ৩ কোটির বেশি মানুষ বেকার হয়ে গেল। কৃষি, শিল্প, ব্যবসা সব বন্ধ হয়ে গেল। ১২ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করল, ১০০ জন ব্যাঙ্কের লাইনে দাঁড়িয়ে মারা গেল। ওনাকে এসবের জবাব দিতে হবে। জনধন যোজনা বড় কেলেঙ্কারি, রাফায়েল আরও বড় কেলেঙ্কারি। কার টাকা কোথায় গেল কেউ জানে না। সব টাকা বিজেপির লোকেদের কাছে চলে গেছে, ওরা লুট করেছে। ৫ বছরে ওরা শুধু পেট্রোল-ডিজেল আর জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়েছে। গো-রক্ষার নামে ওরা উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট ও রাজস্থানে মানুষ মেরেছে। কিন্তু আমরা বাংলায় কারো গায়ে হাত দিতে দিইনি। কারণ এটা আমাদের রাজনীতি নয়।"

তিনি বিজেপিকে 'ভয়ঙ্কর ফ্যাসিস্ট' ও অত্যাচারী রাজনৈতিক দল বলেও আখ্যায়িত করেন।

 

১২ মে, ২০১৯ ০০:১৬:৩৭