পাকিস্তান থেকে গোপনে দেশত্যাগ আসিয়া বিবির
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ধর্ম অবমাননার অভিযোগে অভিযুক্ত আসিয়া বিবি পাকিস্তান ছেড়ে চলে গেছেন৷ এমনই জানিয়েছে ইমরান খানের সরকার৷ ব্লাসফেমি বা ধর্ম অবমাননার অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসিয়া বিবি টানা আট বছর জেল খাটেন। পরে সুপ্রিম কোর্ট তাকে মুক্তির আদেশ দেয় গত বছর। তাকে মুক্তি দেওয়ার প্রতিবাদে পাকিস্তানে বিক্ষোভ প্রতিবাদ করেছিল ধর্ম অবমাননা আইনের সমর্থকরা। তবে আরেকটি পক্ষ তার মুক্তির দাবি জানিয়েছিল৷

আসিয়া বিবিকে কোন দেশে পাঠানো হয়েছে সে বিষয়ে নীরব ইমরান খান সরকার৷ মনে করা হচ্ছে তিনি কানাডায় আশ্রয় নিতে পারেন৷ কারণ এর আগে কানাডা সরকার তাদের দেশে আসিয়াকে নাগরিকত্ব দিতে রাজি এমনই জানিয়েছিল৷

২০১০ সালে প্রতিবেশীর সাথে বিবাদে জড়ান আসিয়া বিবি৷ এরপর ইসলামের নবী মহম্মদ নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগ ওঠে আসিয়ার বিরুদ্ধে৷ পরে ধর্ম অবমাননা আইনে তিনি মৃত্যুদণ্ড পান৷ কিন্তু তাঁর ফাঁসি কার্যকর করা হয়নি৷ সরকার পরিবর্তন হওয়ার পর আসিয়াকে মুক্তি দেওয়া হয়৷ পাঁচ সন্তানের মা আসিয়া বিবি খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী। তিনি অবশ্য সব সময় তার বিরুদ্ধে আনা এমন অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছেন।

এর আগে আসিয়া বিবির আইনজীবীও প্রাণভয়ে পাকিস্তান ছাড়েন৷ আইনজীবী সাইফ উল মালুক বিবিসিকে বলেছেন, আসিয়া বিবি ইতিমধ্যে কানাডা পৌঁছেছেন। সেখানে তার দুই মেয়েকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

০৯ মে, ২০১৯ ০৯:৩৫:১০