জীবন দিতেও রাজি কিন্তু আমি কোনোভাবেই আপোশ করব না: মমতা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, জীবন দিতেও রাজি, কিন্তু আমি কোনোভাবেই আপোশ করব না। আজ (সোমবার) কোলকাতার ধর্নামঞ্চ থেকে রাজ্যের পুলিশ কর্মকর্তাদের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে ভাষণ দেয়ার সময় কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশে তিনি ওই মন্তব্য করেন।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমায় চোর বলছে, আমি কার টাকা নিয়েছি? আসল চোরেরা ধরা পড়ে না, আর যারা সৎভাবে কাজ করতে চায় তাদের যদি কোনও প্রমাণ ছাড়াই চোর বলে সাব্যস্ত করা হয় আমি তার প্রতিবাদ করব, আমার জীবন দিতে হলে আমি তাতেও রাজি, কিন্তু আমি কম্প্রোমাইজ (আপোশ) করব না।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের পুলিশকে যদি কেউ অসম্মান করে, তার কোনো দোষ না থাকা সত্ত্বেও তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়, কোনো কারণ ও সঠিক তথ্য ছাড়াই তার বাড়িতে যায় তাহলে আমার প্রতিবাদ করার প্রয়োজন ছিল কারণ প্রত্যেক মানুষের একটা সম্মান আছে, একটা নিজস্বতা আছে।’

তিনি বলেন, ‘মিথ্যে কথা বলে তৃণমূল কংগ্রেসকে অনেক আঘাত করা হয়েছে। আমাদের কেউ কোনোভাবে দায়ী নয়।’

পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ কমিশনারের বাসায় কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআই হানাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের মধ্যে তীব্র সংঘাত শুরু হয়েছে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল (রোববার) রাত থেকে কোলকাতার মেট্রো চ্যানেলে ধর্না-অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন। তাঁর অভিযোগ কেন্দ্রীয় সরকার বিভিন্ন এজেন্সি দিয়ে রাজ্য সরকারকে উৎখাত করার ষড়যন্ত্র করছে।

মমতা আজ ধর্নামঞ্চ থেকে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ভারতবর্ষকে যিনি ছিন্নভিন্ন করে দিয়ে মানুষের মধ্যে বিভেদ, হত্যা, অত্যাচার ও সন্ত্রাস করছেন তাঁর বিরুদ্ধে আমাদের এই আন্দোলন। এজেন্সি দিয়ে সবাইকে চুপ করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, এই জিনিস কখনোই সমর্থনযোগ্য নয়। বিজেপির বিরোধিতা করা মানেই তার পিছনে এজেন্সি লাগিয়ে দেয়া,  তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া,  তাঁকে শত্রু বলা,  বিরোধিতা করা মানেই তিনি দেশপ্রেমিক  নন! এক ঘৃণ্য কায়দায় মানুষের মনে ঘৃণা সৃষ্টি করা হচ্ছে।’

কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে মমতা বলেন, সারাক্ষণ ক্ষমতা হারানোর ভয়ে বিরোধীদের শেষ করার জন্য অপারেশন শুরু হয়েছে। এর বিরুদ্ধে সত্যাগ্রহ আন্দোলন চলবে।  ভারতকে রক্ষার জন্য এই সত্যাগ্রহ আন্দোলন আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে বলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান।

 

 

 

 

 

০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:১১:৫৩