এনগেজমেন্ট রিং নর্দমায়, ঝাঁপিয়ে পড়ল নিউ ইয়র্ক পুলিশ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
নিউ ইয়র্কে জন এবং ড্যানিয়েলা। (ইনসেটে) উদ্ধারের পরে সেই আংটি
সেই প্রাচীন আমলের ‘অভিজ্ঞান শকুন্তলম’ থেকে হালফিলের ‘হ্যারি মেট সেজল’। একরত্তি আংটি হারানোর কাহিনিমালায় নতুন অধ্যায় যোগ করল নিউ ইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এনওয়াইপিডি)।

‘সন্ধান চাই। এমন এক জন প্রেমিকের, যিনি বাগদত্তার আঙুলে আংটি গলানোর মুহূর্তে সেটি হারিয়ে ফেলেছেন। যাঁর আঙুল থেকে আংটি ফস্কে গেল, তাঁর সন্ধান পেলেও চলবে।’ এনওয়াইপিডি-র করা রবিবারের এই টুইটে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল নেট দুনিয়ায়। দাগি অপরাধীদের ধরা যাঁদের কাজ, তাঁরা হঠাৎ এক প্রেমিক যুগলকে খুঁজতে উঠেপড়ে লাগলেন কেন? উত্তর মিলল টুইটের সঙ্গে পোস্ট করা ভিডিয়ো থেকেই। 

শুক্রবার মাঝরাতে টাইমস স্কোয়্যারের একটি ভিডিয়ো ফুটেজ। দেখা যাচ্ছে, ফুটপাতে হাঁটু গেড়ে বসে বিবাহপ্রস্তাব দিচ্ছেন এক ভদ্রলোক। কিন্তু বান্ধবীর আঙুলে গলানোর আগেই সেই আংটি পড়ল মাটিতে। মুহূর্তে চার হাত-পায়ে হামাগুড়ি দিয়ে আংটি খুঁজতে শুরু করেন ভদ্রলোক। কিন্তু আংটি তত ক্ষণে গড়িয়ে ফুটপাতের পাশের নর্দমায় ঢুকে গিয়েছে। ঢাকা দেওয়া সেই নর্দমার ঝাঁঝরি দিয়ে আংটি গলে যেতে পারে, কিন্তু সেখান থেকে আংটি বার করে আনা অসম্ভব। নর্দমার কাচের ঢাকার উপরে উপুড় হয়ে কিছু ক্ষণ শুয়েও রইলেন ভদ্রলোক। যদি আংটিটা পাওয়া যায়! তারপর না পেয়ে হতাশ হয়ে চলে গেলেন দু’জনে। 

প্রেমিক-প্রবর না পারলে কী হয়েছে, এনওয়াইপিডি পারে না, এমন কাজ কি কিছু আছে! বিশেষ করে যে নর্দমায় আংটিটা পড়ে গিয়েছে, তার নীচে তো মিহি জাল লাগানো। ফলে ধরে নেওয়া যেতে পারে, আংটি আটকে আছে সেখানেই। যেমন ভাবা তেমন কাজ। মুহূর্তে টাইমস স্কোয়্যারে পৌঁছে গেল পুলিশ বাহিনী। নর্দমা খুলে উদ্ধার করা হল বড়সড় হিরে বসানো সেই ‘এনগেজমেন্ট রিং’।

আংটি তো উদ্ধার হল। কিন্তু সেটি কী করে ফিরিয়ে দেওয়া হবে তার মালিকের কাছে? তাঁরা তো আংটির খোঁজে পুলিশের কাছে যাননি। পুলিশই নিজে থেকে সেটির সন্ধান করেছে। হারানিধি ফিরিয়ে দিতে এ বার পুলিশের হাতিয়ার হল সোশ্যাল মিডিয়া। আংটি হারানো ও তা খুঁজে পাওয়ার গল্প বলে সিসিটিভি ফুটেজটিও টুইট করে দিল তারা।

সাড়াও মিলল প্রচুর। ২৯ হাজার বার রি-টুইট হয় পোস্টটি। যার দৌলতে খোঁজ মেলে দু’জনের। জানা গিয়েছে, ব্রিটেনের কেমব্রিজশায়ারের বাসিন্দা জন এবং ড্যানিয়েলা নিউ ইয়র্ক বেড়াতে এসেছিলেন। সেখানেই জনের বিবাহপ্রস্তাব এবং তারপর অঘটন। টুইটারে আংটি উদ্ধারের কথা জানতে পেরে নিউ ইয়র্ক পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন জনেরা। 

ইতিমধ্যে নর্দমায় পড়া আংটি ধুয়েমুছে ঝকঝকে করে রেখেছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ বিভাগ। এখন শুধু সেটি যথা আঙুলে পৌঁছে দেওয়ার অপেক্ষা।

 

 

০৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৭:০০:৫২