ক্রমশ ‘মৃত্যুপুরী’ গভীরতর হচ্ছে আরব সাগরে
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
জলবায়ু পরিবর্তনের কুপ্রভাব সামনে এল আরও একবার। আরব সাগরে ক্রমশ বড় আকার নিচ্ছে ডেড জোন। প্রায় আস্ত স্কটল্যান্ডের আকার নিয়ে এই ডেড জোন। সম্প্রতি এক গবেষণায় এই ভয়ঙ্কর ছবি সমানে এসেছে। চলতি বছরের শুরুতেই এই গবেষণা করেছেন, আবু ধাবির গবেষক জোহাইর লাখার৷

সমুদ্রে মৃত এলাকা বলা হয় সেসব স্থানকে, যেখানে অক্সিজেনের মাত্রা এতটাই কম যে, মাছ বা অন্যান্য প্রাণীর জীবনধারণ প্রায় অসম্ভব৷ আরব সাগরের এই মৃত এলাকা পৃথিবীতে ‘সবচেয়ে বড়’ বলে দাবি লাখারের৷ “একশ মিটার থেকে শুরু করে দেড় হাজার মিটার গভীরতা পর্যন্ত পানিতে অক্সিজেন প্রায় নেই বললেই চলে।” এমনটাই জানিয়েছেন লাখার৷

লাখারের সঙ্গে অন্যান্য গবেষকরাও একমত যে, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি এই মৃত এলাকার আয়তন দিন দিন বাড়াচ্ছে৷ এর ফলে জীববৈচিত্র্য তো হুমকির মুখে পড়ছেই, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মৎস্য ও পর্যটন শিল্পও৷ গবেষণায় ব্যবহার করা হয়েছে বিশেষ ধরনের রোবট, মানুষের পক্ষে যাওয়া অসম্ভব, এমন সব স্থানে পৌঁছে তথ্য ও নমুনা সংগ্রহ করেছে সেই রোবট৷ যৌথভাবে এই গবেষণা পরিচালনা করেছে ব্রিটেনের ইস্ট আঙ্গেলিয়া ইউনিভার্সিটি এবং ওমানের সুলতান কাবুস ইউনিভার্সিটি৷

২০১৫ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত চালানো এই গবেষণার ফল প্রকাশ করা হয় এপ্রিলে৷ রিপোর্টে দেখা যায়, আরব সাগরে পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হয়ে চলেছে৷ পুরো মৃত এলাকা জুড়েই গভীরতা সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে৷ ফলে শুধু আরব সাগরই নয়, ভারত মহাসাগর এবং ভারতের মুম্বই থেকে শুরু করে ওমানের মাস্কট পর্যন্ত পড়বে নানা ধরনের প্রভাব৷ এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সামুদ্রিক কোরালও৷

২১ জুলাই, ২০১৮ ২২:৩৯:১৬