ট্রাম্প-পুতিন বৈঠকের পরেই গোপন হাতিয়ার প্রকাশ্যে আনল রাশিয়া
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করে আসার একদিন পরেই পালটি খেলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন৷ ঐতিহাসিক বৈঠকের ঠিক একদিন পরেই রুশ পারমাণবিক অস্ত্রের পরাক্রম দেখাল মস্কো৷ বিভিন্ন অত্যাধুনিক রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা এবং যুদ্ধক্ষেত্রে এর ব্যবহার সম্পর্কিত একটি ভিডিও প্রকাশ করল পুতিন প্রশাসন৷ যাকে মোটেই হালকাভাবে নিচ্ছেন না আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা৷

হলিউড সিনেমার মতো কায়দায় নির্মিত ভিডিওটিতে তাঁদের সংগ্রহে থাকা সবচেয়ে ভয়ঙ্কর অস্ত্রগুলির ঝলক তুলে ধরেছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক৷ সেখানে দেখানো হয়েছে যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রুকে মারমুখী যুদ্ধবিমান মিগ-৩১-কে৷ রয়েছে, কিঞ্জল হাইপারসনিক মিসাইল৷ কেবল ভিডিও প্রকাশ করেই থেমে থাকেনি রাশিয়া৷ সেখানে যুক্ত করা হয়েছে গত মার্চ মাসে দেওয়া প্রেসিডেন্ট পুতিনের একটি বিতর্কিত বক্তৃতাকে৷ যেখানে তাঁকে বলতে শোনা যাচ্ছে যে, রাশিয়ার অস্ত্রাগারে এমন অস্ত্র রয়েছে যা দিয়ে বিশ্বের যেকোনও প্রান্তে হামলা চালাতে পারেন তাঁরা৷ বিশেষজ্ঞদের মতে, এই হুঁশিয়ারি কাদের বিরুদ্ধে দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট তা মুখে না বললেও টার্গেট খুবই স্পষ্ট৷ কারণ, গত দু’বছর ধরে অর্থাৎ ২০১৬-র মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর থেকেই আমেরিকার সঙ্গে বেড়েছে রুশ টানাপোড়েন৷ কিন্তু একটা প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পাচ্ছেন না অনেক বিশেষজ্ঞই৷ তাঁদের প্রশ্ন, ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের একদিন পরেই এমন একটা ভিডিও প্রকাশ করল কেন রাশিয়া?

প্রসঙ্গত, সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে কয়েকদিন আগেই ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলসিঙ্কিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ পাশাপাশি এই বৈঠকের দিকে তাকিয়ে ছিল বিশ্বের সমস্ত রাজনৈতিক মহল৷ হেলসিঙ্কিতে পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের আগেই টুইট বার্তায় পূর্বতন মার্কিন প্রশাসনকে আক্রমণ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প৷ বলেছিলেন, আগের সরকারের ভুল পরিকল্পনা ও চিন্তাভাবনাই এতদিন আমেরিকা ও রাশিয়াকে দূরে সরিয়ে রেখেছিল৷ এখানেই শেষ নয়, এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের বিষয়টিকেও গুরুত্ব দেননি তিনি৷ প্রায় ৯০ মিনিট একান্তে বৈঠক করেছিলেন বিশ্বের দুই শক্তিধর দেশের রাষ্ট্রনায়করা৷ তাঁদের আলোচনায় বাণিজ্য থেকে প্রতিরক্ষা, চিন থেকে শুরু করে পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার মতো একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে বলে জানা গিয়েছে৷

 

২০ জুলাই, ২০১৮ ২৩:১৭:৫৪