জেলে বসে সমর্থকদের চাঙ্গা করার চেষ্টা মারিয়মের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট




চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না নওয়াজ কন্যা মারিয়ম শরিফ। জেলে ঢোকার মুহূর্তেও পাক নাগরিকদের আবেগঘণ বার্তা দিয়ে ভোটের বাজার গরম করার শেষ চেষ্টাটুকু করে গেলেন তিনি। ভোটের মুখে নেতৃত্বের অভাবে কার্যত দিশাহারা তাঁর দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ)। দলের প্রাক্তন প্রধান নওয়াজ শরিফও ১০ বছরের জন্য কারাগারে বন্দি। এমতাবস্থায় নিজের দলকে চাঙ্গা রাখতে মারিয়ম স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, “এখন আর একটি কেন্দ্রে নয় ২৭২টি কেন্দ্রেই আমি লড়ছি।”

পিএমএল (এন) সমর্থকদের উদ্দেশে মারিয়ম তাঁর এক অডিও বার্তায় জানিয়েছেন, “লন্ডনে অসুস্থ মা-কে রেখে  এসেছি আমরা। আসার সময় এই প্রথম চোখ খুলে আমাদের দিকে তাকিয়েছেন। কোনও কথা বলতে পারেননি।” মারিয়মের এ হেন আবেগঘন বার্তায় রাজনৈতিক কৌশল দেখছেন বিরোধীরা। লিমফোমা রোগে আক্রান্ত হয়ে ২০১৭ সাল থেকে অসুস্থ মারিয়মের মা কুলসুম বাট। গত জুনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি ঘটে। এই মুহূর্তে তাঁর চিকিত্সা চলছে লন্ডনে।

মারিয়ম আরও জানিয়েছেন, নওয়াজের কন্যা হওয়ার দরুণ তাঁকে এই শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। তবে, নওয়াজকে সাহসী বাবা উল্লেখ করে মারিয়মে কটাক্ষ, “নওয়াজ শরিফের দুর্বলতা হিসাবে আমাকে চিহ্নিত করলে ওরা ভুল করবে। আমিই তাঁর (নওয়াজ) শক্তির উত্স।” মারিয়ম জানান, “এখন যদি জেলে না থাকতাম, তাহলে দেশের এতবড় গণতান্ত্রিক যুদ্ধে আপনাদের সঙ্গেই রাস্তায় নামতাম।” দেশের নাগরিককে গণতান্ত্রিক সরকার গড়তে নির্বাচনে ব্যাপক অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানান তিনি। তার কারণ ব্যাখ্যা করে বলেন, “এবার একটি কেন্দ্রে নয়, ২৭২টি কেন্দ্রেই আমি লড়ছি।”

উল্লেখ্য, এই নির্বাচনে দুটি কেন্দ্রে (এনএ-১২৭  (লাহোর- ভি), পিপি-১৭৩) লড়ার টিকিট পেয়েছিলেন মারিয়ম শরিফ। কিন্তু পাক তদন্তকারী সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টাবিলিটি ব্যুরোর ফাইল করা অ্যাভেনফিল্ড দুর্নীতিতে মারিয়মের ৭ বছর এবং বাবা নওয়াজের ১০ বছরের জেল হয়। লন্ডন থেকে লাহোরে পা রাখতেই দুই জনকে গ্রেফতার করে পাক ন্যাব। উল্লেখ্য, মারিয়মের এই দুই কেন্দ্রে লড়ছেন পিএমএল-এন মনোনীত প্রার্থী আলি পারভিয়াজ এবং মালিক ইরফান শাফি খোখর।


১৫ জুলাই, ২০১৮ ২১:৫৫:২৪