বিপজ্জনক কিম! দশ দিনের মধ্যেই ‘ভোল পালটে’ গেল মার্কিন প্রেসিডেন্টের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
দশ দিনের মধ্যেই ‘মত’ পালটে ফেললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট! সিঙ্গাপুর বৈঠক সেরে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন সম্পর্কে যে ধারণা পোষণ করেছিলেন, দু’সপ্তাহ কাটতে না কাটতেই ডোনাল্ড ট্রাম্প বললেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তার কাছে অভাবনীয় বিপদ কিম! ডোনাল্ড ট্রাম্প মেনে নিচ্ছেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু সম্ভার এবং কিম প্রশাসনের নীতি নির্ধারণ অত্যন্ত বিপজ্জনক মার্কিন অর্থনীতি, নিরাপত্তা এবং কূটনৈতিক পরিসরে। এই মুহূর্তে উত্তর কোরিয়ার উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পরিকল্পনা যে নেই, তা আবভাবে বুঝিয়ে দিলেন ট্রাম্প।

 ডোনাল্ড ট্রাম্পের এ হেন মন্তব্যে ফের সমালোচনার মুখে পড়েন রিপাবলিকানদের কাছে। তাঁরা কটাক্ষ করে বলেন, “ট্রাম্পের মন্তব্যে কার্যত দিশাহারা মার্কিন নাগরিক।” কিমের সঙ্গে সাক্ষাতে পরের দিন একটি টুইটে ট্রাম্প লেখেন, “আর কোনও পরমাণু হামলার হুঁশিয়ারি আসবে না উত্তর কোরিয়া থেকে। কিমের সঙ্গে সাক্ষাত করে দারুণ অভিজ্ঞতা হয়েছে। ভবিষ্যতে উত্তর কোরিয়া আরও শক্তিশালী দেশ হওয়ার ক্ষমতা রয়েছে।” পাশাপাশি আরও একটি টুইটে প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে কটাক্ষ করে ট্রাম্প লেখেন, “লোক ভেবেছিল আমারা উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যেন যুদ্ধ করতে যাচ্ছি। বারাক ওবামাও উত্তর কোরিয়াকে দেশের বড় সমস্যা বলেছিল। কিন্তু আমি বলছি কোনও সমস্যা নেই, নিশ্চিন্তে ঘুমান।”

প্রসঙ্গত, ১২ জুন সিঙ্গাপুরে ঐতিহাসিক বৈঠক হয় কিম এবং ট্রাম্পের। বৈঠক শেষে কিম পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে চূড়ান্ত প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। ডোনাল্ড ট্রাম্পও কোরিয় উপদ্বীপে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দেন। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বৈঠকের দু’দিন পরেই দক্ষিণ কোরিয়ায় যৌথ মহড়া বাতিল করে সেখানে নিযুক্ত মার্কিন সেনা বাহিনী। 

 

২৩ জুন, ২০১৮ ১৩:৪৪:৩৪