শিশুর ফুসফুসে দেড় মাস আটকে বাদাম
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
দেড় মাসেরও বেশি সময় ফুসফুসে বাদাম আটকে থাকলেও ভাগ্যক্রমে বেছে গেছে ভারতের বর্ধমান জেলার শিশু দেবরাজ। 

অবশেষে গত মঙ্গলবার অস্ত্রোপচার করে বাদামের টুকরাটি বের করেন চিকিৎসকরা।   

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় মা মধুমিতা দাসের খাবার থেকে একটি বাদাম মুখে নেয় শিশুটি। কিন্তু ওই বাদদমটি আটকে যায় শিশুটির গলায়।   

মা বাদামটি বের করার চেষ্টা করেও পারেননি। তবে কান্না থেমে যাওয়ায় ভাবেন সব ঠিক হয়ে গেছে। আর কাউকে কিছুই জানাননি। 

রাতে আবার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে স্থানীয় এক ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান। এভাবে কয়েকজন ডাক্তার পরিবর্তন করেন। কিছুদিন চিকিৎসা করান দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালেও। সেখান থেকে বলা হয় সব সমস্যা ঠিক।   

তার কিছুদিন পর আবার শুরু হয় খিঁচুনি। এরপরেই গত বুধবার শিশুটিকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা তার সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলার পরে সঠিক ঘটনা জানতে পারেন।   

এরপরেই এক্স-রে প্রতিবেদনে দেখা যায়, ফুসফুসে বাদাম আটকে আছে।   

অস্ত্রোপচারের পর মা মধুমিতা দেবী বলেন, 'আমার ভুলেই কষ্ট পেল ছেলেটা। আমার উচিত ছিল চিকিৎসকদের আগেই ঘটনাটি খুলে বলা।'   

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

০৫ জানুয়ারি, ২০১৭ ১৫:১৭:২৮