রেললাইনে মলত্যাগ : প্রাণে বাঁচলো শত শত ট্রেন যাত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
প্রতিদিনকার মতো রেললাইনে মলত্যাগ করতে গিয়েছিলেন ভারতীয় তিন তরুণ। কিন্তু খোলা জায়গায় এই প্রাকৃতিক কাজ সারতে গিয়ে যে একটি ভয়াবহ দুর্ঘটনা থেকে অনেক মানুষের জীবন বাঁচাতে পারবেন এমনটা ভাবেননি তারা। অথচ সেই ঘটনাই জন্ম দিল অসাধারণ এক ঘটনার। বিবিসি বাংলার বরাতে জানা যায় সুব্রত বাগদি, প্রকাশ দাস ও বিষ্ণু তুরি নামে বীরভূম জেলার বোলপুরের তিন তরুণ প্রতিদিনকার মতো রেললাইনে প্রাকৃতিক কাজ সারতে যান। তখন সময় সকাল আটটা। শান্তিনিকেতন-বোলপুর শহরের কাছেই ছিল সে জায়গাটা। যখন প্রাকৃতিক কর্ম সারার জন্য তারা রেললাইনে গিয়েছিলেন তখন সামনেই দেখতে পান রেললাইনে প্রায় দেড় ইঞ্চি ফাটল!

ততক্ষণে বর্ধমান-বারহারোয়া প্যাসেঞ্জার ট্রেনটির আসার সময় হয়েছে। তারা যে ‘কাজে এসেছিল’ সে ‘কাজ’ ফেলে দৌড় লাগায় বাড়িতে। সেখান থেকে লাল গামছা নিয়ে আসেন। লাল গামছা নিয়ে আসতে আসতে শুনতে পান ট্রেনের আওয়াজ। সিনেমার মতো একটু এগিয়ে গিয়ে লাল গামছা নাড়াচ্ছিলেন হয়তো। লাল গামছার সঙ্কেত খেয়াল করে যখন চালক ট্রেনটিকে পুরোপুরি থামাতে সক্ষম হন, ততক্ষণে ট্রেনের সামনের দিকের দুটি কামরা ওই ফাটল পেরিয়ে গেছে।

চালক ও রেলকর্মীরা পরবর্তীতে নেমে দেখেন ব্যাপারটা কি। দেখে সত্যিই তাদের ভয় পাওয়ার কথা। মারাত্মক এক দুর্ঘটনার খুব কাছ থেকে ফিরে আসার অভিজ্ঞতা বলার মতো নয়। ফাটল সারিয়ে পঁচিশ মিনিট পর ট্রেন চালু হয়। মারাত্মক একটি দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় ওই ট্রেনের যাত্রীরা। পূর্ব রেলের মুখপাত্র রবি মহাপাত্র বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, ‘তিন কিশোরই প্রথম ফাটলটা লক্ষ্য করেছিল। তাদের জন্যই দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে ট্রেনটি।তবে তারা সকাল বেলায় রেললাইনের ধারে কী করছিল, সেটা বলতে পারব না!”

যে ‘কাজ’ করতেই আসুক না কেন তারা যে একটি ‘কাজ’ করতে গিয়ে অপর একটি অসাধারণ কাজ করেছেন। শত মানুষের জীবন বাঁচিয়ে তারা যে অসাধারণ এক ঘটনার জন্ম দিয়েছে সেটা বলাই বাহুল্য!

ভারতে প্রকাশ্যে মল-মূত্র ত্যাগ যে বড় ধরনের সমস্যা, সেটা দেশের সরকার স্বীকার করতে শুরু করেছে বেশ কয়েকবছর আগেই।এখনো অর্ধেকের বেশি ভারতীয় প্রকাশ্যে মলমূত্র ত্যাগ করে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাই শুরু করেছেন স্বচ্ছ ভারত অভিযান। সে অভিযানের আওতায় গ্রামে গ্রামে টয়লেট তৈরির জন্য অনুদান দেওয়া হচ্ছে,  ভোরবেলায় গ্রামে গিয়ে নজরদারি আর খোলা মাঠে মল-মূত্র ত্যাগ না করার জন্য প্রচারণা চালাচ্ছেন সরকারি কর্মকর্তারা।

কিন্তু সেই প্রকাশ্যে মলত্যাগ যে কখনও কখনও উপকারেও লাগতে পারে, এটা কেউই ভাবেননি! প্রকাশ্যে মলত্যাগের অভ্যাস সম্ভাব্য দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করেছে এক ট্রেন ভর্তি যাত্রীকে।

গত দুই মাসে উত্তর প্রদেশে দুটি মর্মান্তিক রেল দুর্ঘটনায় শতাধিক যাত্রী নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে আরও কয়েক শ’ যাত্রী। ভারতে রেল দুর্ঘটনা অনেকটা নিয়মিত ঘটনা। প্রাকৃতিক কাজ সারতে গিয়ে তিন তরুণ এক অসাধারন ঘটনার জন্ম দিয়ে ঠেকিয়ে দিলেন অবশ্যাম্ভাবি এক ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা। সূত্র: বিবিসি

০৫ জানুয়ারি, ২০১৭ ১৪:৪৪:৪৬