ঘুমের বারোটা বাজায় যে খাবার
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
আমাদের এই স্ট্রেসফুল লাইফে রাতে অন্তত ৭ ঘণ্টা ঘুম খুব জরুরি। কিন্তু মাঝে মাঝে ঘুমোতে চাইলেও দেখবেন ঘুম আসছে না।| এর জন্য স্ট্রেস অবশ্যই দায়ী। কিন্তু জানেন কী, এমন কিছু খাবার আছে, যা আমরা হামেশাই খেয়ে থাকি, আর এই বিশেষ খাবারগুলো ঘুমের দফারফা করার জন্য দায়ী।
১. ওয়াইন: এতদিন যদি ভেবে থাকেন রাতে শোয়ার আগে একটু ওয়াইন খেলে আরও ভাল ঘুম হবে,তাহলে ভুল করেছেন। যদিও ওয়াইন খেলে খুব তাড়াতাড়ি ঘুম চলে আসে কিন্তু একটু পরে মাথাব্যথা, প্রচণ্ড ঘাম, হতে শুরু করবে। তাই যদি ওয়াইন খেতেই হয় তাহলে ঘুমোতে যাওয়ার অন্তত ৬ ঘণ্টা আগে তা পান করুন। আর প্রচুর জল খান যাতে ওয়াইনের এফেক্ট ডাইল্যুট হয়ে যায় তাড়াতাড়ি।
২. গ্রিন টি: যদিও গ্রিন টির অনেক উপকার আছে কিন্তু ঘুমের খুব ক্ষতি করে গ্রিন টি। তার জন্য দায়ী গ্রিন টি-তে থাকা রাসায়নিক।
৩. চিকেন (প্রোটিন): যদিও রোজকার ডায়েটে প্রোটিন থাকা খুব দরকার। কিন্তু বেশি পরিমাণে প্রোটিন খেলে কিন্তু ঠিক মতো ঘুম আসবে না। চিকেনে হাই প্রোটিন আছে,ডিনারে তাই যদি চিকেন খান বা যে কোনও হাই প্রোটিন খাওয়ার খান তা হলে শরীরে প্রচুর এনার্জি তৈরী হবে। শরীর শান্ত হওয়ার বদলে উত্তেজিত হয়ে যাবে। এছাড়া হাই প্রোটিন আর ফ্যাট যুক্ত ডায়েটের জন্য ঘুমের সময় নানারকম শারীরিক সমস্যা হয়।
৪. আইসক্রিম বা ডেজার্ট: রাতে আইস ক্রিম বা অন্য কোন ডেসার্ট এড়িয়ে চলা উচিত। এতে হাই ফ্যাট আর প্রচুর পরিমাণে চিনি থাকে। তাই শুতে যাওয়ার আগে খেলে আপনার শরীর ফ্যাট বার্ন করে উঠতে পারবে না ফলে আপনি রেস্টলেস হয়ে উঠবেন। এছাড়া শুতে যাওয়ার আগে এইসব খাবার খেলে গাড় ঘুম হবে না।
৫. চকোলেট: মিল্ক চকোলেট বা চকোলেটে থাকা রাসয়নিক হার্ট বিট বাড়িয়ে তোলে। তার ফলে ঘুম আসতে চায় না।
৬. মশলাদার খাবার: লঙ্কা বা সর্ষে বাটা দেওয়া খাবার রাতে না খাওয়াই ভাল। লঙ্কা আর সর্ষে শরীরের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়। রসুনকে হট হার্ব বলা হয় যা খেলে অম্বল আর বুক জ্বালার সমস্যা হতে পারে।
৭. চিজ: উপকথা অনুযায়ী রাতে চিজ খেলে দুঃস্বপ্ন দেখবেন। চিজে থাকা রাসায়নিক ব্রেনকে স্টিমুলেট করে আর আপনাকে সারা রাত জাগিয়ে রাখতে পারে। কারওর কারওর মাইগ্রেনের সমস্যাও দেখা দিতে পারে চিজ খাওয়ার ফলে। ঘুমোতে যাওয়ার তিন ঘণ্টা আগে অন্তত ডিনার সেরে ফেলার চেষ্ট করুন।
০৩ নভেম্বর, ২০১৫ ২১:০৯:৩৮