ডুয়ার্স এক সবুজের সাম্রাজ্য
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ডুয়ার্স। শিলিগুড়ি শহর থেকে সামান্য দূরেই রয়েছে অন্যতম সেই ট্র্যাভেল ডেস্টিনেশন। ছোটোবড় পাহাড়। পাহাড়ি রাস্তা এঁকেবেঁকে মিশেছে দূরের পাহাড়ে। আঁধোআলো পরিবেশ। কুশায়ার কারণে স্পষ্ট করে সবকিছু দেখা যায় না। তার মধ্যে দাঁড়িয়ে রয়েছে শাল, সেগুন গাছ। এখানে-ওখানে দু-একটা ঘরবাড়ি। সবকিছু মিলিয়ে ডুয়ার্সের পরিবেশ নিঝুম, নিরিবিলি। অপূর্ব প্রাকৃতিক পরিবেশের জন্য ডুয়ার্স অন্যতম বেড়াতে যাওয়ার ঠিকানা।

ডুয়ার্সের প্রাকৃতিক রূপ বারবার জায়গা করে নেয় সাহিত্যে। সমরেশ মজুমদারের ‘কালবেলা’ নিশ্চয় অনেকে পড়ে থাকবেন? চারদিকে সবুজে ঢাকা পাহাড়। ঠান্ডা মনোরম পরিবেশ। প্রকৃতির এমন রূপ দেখে মুগ্ধ হবেন। ‘ডুয়ার্স’ কথার অর্থ দুয়ার। অর্থাৎ দরজা। ব্রিটিশ আমলে সেখানকার নাম হয় ডুয়ার্স। প্রকৃতির সৌন্দর্য তো আছেই, তাছাড়াও সেখানে রয়েছে গোরুমারা, চাপরামারি, জলদাপাড়া, গজলডোবা, ঝালংয়ের মতো সুন্দর জায়গা। কলকাতা থেকে ট্রেনে করে পৌঁছে যেতে পারেন নিউ জলপাইগুড়ি। সেখান থেকে নিজেদের পরিকল্পনা অনুযায়ী শুরু করতে পারেন ডুয়ার্সের উদ্দেশে যাত্রা।

প্রথমেই ঘুরে দেখুন গোরুমারা আর চাপরামারি। সেখানে রয়েছে অভয়ারণ্য। ১৯৪৯ সাল থেকে এটি অভয়ারণ্য, এর আগে অবশ্য তা শিকার করা প্রাণীদের সংরক্ষণকেন্দ্র ছিল। গোরুমারা জঙ্গলে ক্যাম্প করতে পারেন। রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা হবে। কিছু সময় সেখানে কাটিয়ে বেরিয়ে পড়ুন ডুয়ার্সের উদ্দেশে।

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৯:৫৯:৫০