ডিভোর্সের খবরে ক্ষুব্ধ প্রিয়াঙ্কা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
মাত্র তিন মাসেই নাকি ভেঙে যেতে চলেছে প্রিয়াঙ্কা-নিকের দাম্পত্য। সম্প্রতি এক মার্কিন ম্যাগাজিনের খবরে এমনই জল্পনা ছড়ায়। প্রিয়াঙ্কা এবং নিক এ নিয়ে মুখ না খুললেও এই খবরের সত্যতা অস্বীকার করেছেন প্রিয়াঙ্কার মুখপাত্র।

প্রথম এই খবর প্রকাশ করেছিল আমেরিকার ‘ওকে’ ম্যাগাজিন। শোনা যাচ্ছে, ওই ম্যাগাজিনের বিরুদ্ধে আইনি নোটিস পাঠাতে যাচ্ছেন প্রিয়ঙ্কা। ইমেজ নষ্ট করার ক্ষতিপূরণ দাবি করবেন তিনি।

প্রিয়াঙ্কার ঘনিষ্ঠ সূত্রের দাবি, বেশির ভাগ সময়ই গসিপকে কোনও পাত্তা দেন না নায়িকা। কিন্তু এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর তিনি দুঃখ পেয়েছেন।

ওই ম্যাগাজিনে লেখা হয়েছিল, শুধুমাত্র টাকার জন্যই প্রিয়াঙ্কা বিয়ে করেছেন। নায়িকার দাবি, এতে তার এতদিনের তৈরি ইমেজ নষ্ট হয়েছে। ফলে ম্যাগাজিনের বিরুদ্ধে বড় অঙ্কের ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারেন তিনি।

মুখ না খুললেও নিকের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক যে মজবুত রয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক ছবি দিয়ে তার প্রমাণ দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। সদ্য আটলান্টায় জোনাস ব্রাদার্সের শো-তে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। সেখানে নিক ছাড়াও জো এবং কেভিন উপস্থিত ছিলেন। মঞ্চ থেকেই ইঙ্গিতে প্রিয়ঙ্কাকে ‘আই লভ ইউ’ বলেন নিক।

ওই কনসার্ট চলাকালীন এক নারী ভক্ত নিকের দিকে নিজের অন্তর্বাস ছুড়ে দেন। তা নিজের হাতে নিককে পৌঁছেও দেন প্রিয়ঙ্কা। এই ঘটনায় একটুও বিরক্তি ছিল না নায়িকার মুখে। বরং ছবি দেখে অনেকেরই মনে হয়েছে, তিনি বেশ মজা পেয়েছেন।

ওই ম্যাগাজিনের দাবি ছিল, নিকের হয়ে বিয়ের পর থেকে সব সিদ্ধান্তই প্রিয়াঙ্কা নিচ্ছিলেন। নিকের নিজস্ব মতামতের কোনও গুরুত্ব থাকছিল না। সে কারণেই নাকি তাদের দাম্পত্যে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। কিন্তু প্রিয়াঙ্কার সোশ্যাল ফলোয়াররা এ দাবি মানতে নারাজ। নিকের ব্যবহারে প্রিয়াঙ্কার প্রতি কোনও অসন্তোষ দেখতে পাননি তারা। সে কারণেই গোটা ঘটনা গসিপ বলেই উড়িয়ে গিতে চান প্রিয়াঙ্কার অনুরাগীরা। সূত্র: আনন্দবাজার।

 

০১ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৮:১৮