ধর্ষক বয়ফ্রেন্ডকে পালাতে সাহায্য করেছিলেন অভিনেত্রী নুসরাত
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
পার্ক স্ট্রিট কান্ড! তাতে আবারও টলিউড ডিভা নুসরাত কানেকশন। মূল অভিযুক্ত কাদের ধরা পড়তেই, ফের নাম উঠে এল এই নামী টলি হিরোইনের। অভিযোগ, কাদেরকে পালাতে সাহায্য করেছিলেন তিনি। এনিয়ে নুসরাতের প্রতিক্রিয়া, যা বলার বলবেন তাঁর আইনজীবী। ২০১২-র পার্ক স্ট্রিট গণধর্ষণকাণ্ড। অভিযুক্ত কাদের, আলি, রুমান, নাসির, সুমিত। এদেরই সঙ্গে জড়ায় অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের নামও। কাদের কানেকশনে। মূল অভিযুক্ত কাদের খান ছিল নুসরতের বয়ফ্রেন্ড। কলেজ জীবন থেকেই কাদেরের সঙ্গে পরিচয় নুসরতের। সম্পর্ক এগোচ্ছিল বিয়ের দিকে। পার্ক স্ট্রিট কাণ্ডের পরই ফেরার হয়ে যায় কাদের। নজর ঘুরে যায় হিরোইন গার্লফ্রেন্ডের দিকে। কোথায় বয়ফ্রেন্ড? বারবার শুনতে হয় এই প্রশ্ন। উত্তর এক। কিছুই জানা নেই।

শুরু থেকেই অবশ্য অভিযোগ উঠছিল, বয়ফ্রেন্ড কাদেরকে পালাতে সাহায্য করেন নুসরতই। ফেরার কাদের যখন  মুম্বইয়ে কিছুদিনের জন্য ঘাঁটি গেড়ে বসে, তখন দুজনের দেখা করার অভিযোগও ওঠে। পুলিস সূত্রে খবর, মুম্বইয়ের এক হোটেলে একই রুমে ছিলেন নুসরাত ও কাদের। এর প্রমাণ হোটেল রেজিস্ট্রার থেকে মিলেছে। অভিযোগ এও উঠছে, প্রভাবশালী মহলে নিত্য যাতায়াত, এমন গার্লফ্রেন্ডের হাত ধরেই এত দীর্ঘ সময় পুলিসের চোখে ধুলো দিয়ে বেড়ায় কাদের খান।

দুজনের সম্পর্কে ভাঙন ধরার পরই, পুলিসের রেডারে চলে আসে কাদের। এরপর লাগাতার ট্র্যাকিং এবং অবশেষে গ্রেফতারি। কাদের এখন পুলিসের জালে। তারই দাবি, নুসরত তাকে পালাতে সাহায্য করে। সেদিন সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন নুসরাত। সাহায্য আসলে কাকে করেছিলেন তিনি? পুলিস-প্রশাসন, নাকি বয়ফ্রেন্ড? সব প্রশ্ন এসে থামছে এখানেই। সূত্র: জিনিউজ

০৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:১৫:৪৮