যে কারণে নৃসংশভাবে খুন হয়েছিলেন মডেল মানসী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
গেল বছরের ১৪ অক্টোবর স্যুটকেসে আটকানো অবস্থায় মডেল মানসী দীক্ষিতের মরদেহ পায় পুলিশ। তখন তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যায়নি। সম্প্রতি তার মৃত্যুর কারণ জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। ফটোগ্রাফার  সৈয়দ মোজাম্মিলের কু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মানসীকে মরতে হয়েছিল। মানসী হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে ভারতের একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, কাজের খাতিরেই ফটোগ্রাফার সৈয়দ মোজাম্মিলের সঙ্গে পরিচয় হয় উঠতি মডেল মানসী দীক্ষিতের। গত বছরের ১৫ অক্টোবর ফটোসুটের কথা বলে মানসীকে নিজের বাড়িতে ডেকে পাঠায় মোজাম্মিল। সেখানেই ছবি তোলার এক পর্যায়ে এই মডেলকে যৌন সম্পর্কের কুপ্রস্তাব দেয় সে। কিন্তু সেই প্রস্তাবে রাজি না হলে তার সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ান ফটোগ্রাফার মোজাম্মিল। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে ভারী কাঠের টুকরো নিয়ে মানসীর মাথায় আঘাত করে মোজাম্মিল। এরপরেই জ্ঞান হারান ওই তরুণী।

মোজাম্মিলের বিরুদ্ধে অভিযোগ, জ্ঞান হারানোর পরও মানসীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সে। এরপর গলায় দড়ি দিয়ে পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে মানসীকে। পরে মানসীর লাশকে ব্যাগে ভরে রাস্তার ধারে ফেলে পালিয়ে যায় মোজাম্মিল।

মানসী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মোজাম্মিলকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদিকে, ছেলের এমন নিষ্ঠুর হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে হতবাক মোজাম্মিলের পরিবার।

 

২৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৪৫:২০