মুগ্ধ করল শুভ-ঋতুপর্ণার 'আহা রে'র ট্রেলার [ভিডিও]
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
একজন সুদর্শন-স্মার্ট ঢাকার ছেলে ৷ বড় হোটেলের প্রধান শেফ তিনি ৷ নতুন নতুন খাবার বানানো তাঁর পেশা। নেশাও। ম্যাগাজিনে তাঁর সাক্ষাৎকার ছাপা হয়। সে মনে করে ভাল রান্নার জন্য নিয়ম নয়, জরুরি কল্পনা। কিন্তু ভাগ্য তাকে এনে ফেলে কলকাতায়। কিন্তু নামী কোনও হোটেলের রান্নাঘরে সে আর শেফ নয়। বরং সাধারণ মধ্যবিত্ত এক বাঙালি মেয়ের হেঁশেল তাঁকে টানে। খাবারের স্বাদ যে শুধু মশলায় নয়, ভালবাসাতেও লুকিয়ে আছে, তা জানতে পারেন তিনি। মধ্যবিত্ত এক মেয়ের কাছে রান্না শিখতে চান। এই রান্নাবান্নার মধ্যেই সেই সাধারণীকে মন দিয়ে ফেলে ঢাকার নামী শেফ। এখানে বাধে আরও এক সমস্যা। ধর্ম দু’জনের আলাদা। একজন হিন্দু, অন্যজন মুসলিম। বয়সেরও ফারাক আছে। পাত্রী যদি পাত্রের থেকে বড় হয়, তাহলে এখনও সমাজ সহজে মেনে নেয় না। এখানে সেই সমস্যাও আছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি জটিল। এটাই ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর পরের ছবি আহা রে-র প্রেক্ষাপট। কিন্তু গল্পের শুরু রান্না দিয়ে হলেও শেষ পর্যন্ত গন্তব্য প্রেম। আহারে খাবার জন্যও সত্যি আবার তার থেকেও বড় অভিব্যক্তি প্রেমের জন্য। ঋতুপর্ণা জন্মদিনের দিনই ঘোষনা হয়েছিল এ ছবির। এবার প্রকাশ্যে এল ছবির ট্রেলার। দুই বাংলার বিভিন্ন পদ তো বটেই, তার সঙ্গে কলকাতার রান্নাঘরে বাংলাদেশের সেফ খুঁজে পেয়েছে তার অনুপ্রেরণা।

ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় দেখা গিয়েছে আরিফিন শুভ ও কলকাতার ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। নামী সেফকে সেই ফিরে আসতে হয় আটপৌরে রান্নাঘরে, শিখতে হয় মাটির সঙ্গে একাত্ম হওয়ার সন্ধান। সেকারণেই ঋতুপর্ণার শিক্ষানবিশ হয় শুভ। রান্না ও খাবারের মধ্যেও যে প্রেম লুকিয়ে রয়েছে তারণ বহিঃপ্রকাশ ঘটবে ছবিতে। এছাড়াও রয়েছে দায়িত্ববোধের গল্প, হিন্দু-মুসলিম তরজার ওপরে উঠে মানুষের কাহিনি বলার চেষ্টা।

আহা রে ছবির সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন স্যাভি গুপ্ত। উল্লেখ্য ছবির সিনেমাটোগ্রাফি। হরি নায়ার রয়েছেন ক্যামেরার নেপথ্যে। দহনের পর আবার বাংলা ছবিতে। ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি আহা রে প্রযোজনাও করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর প্রযোজনা সংস্থা ভাবনা, আজ ও কাল। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ৮ ফেব্রুয়ারি।

 



২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ০৮:১৪:৩৬