#MeToo নিয়ে মুখ খুলে সমালোচনার শিকার রানি, কিন্তু কেন?
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছিলেন তনুশ্রী দত্ত। তারপরই প্রায় আন্দোলনের চেহারা নেয় #MeToo। গত অক্টোবরে এই ঝড় উঠেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। বহু জল গড়ানোর পর এ বিষয়ে মুখ খুললেন রানি মুখোপাধ্যায়। আর মুখ খুলেই সমালোচনার শিকার নায়িকা।

ঠিক কী বলেছেন রানি? সম্প্রতি এক আলোচনায় দীপিকা পাড়ুকোন, আলিয়া ভাট, টাব্বু, অনুষ্কা শর্মা, তাপসী পান্নুর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রানি। সেখানে তিনি বলেন, “মেয়েদের নিজেকে রক্ষা করার মতো সাহস বা ক্ষমতা থাকা উচিত।’’

রানির কথা শেষ হতে না হতেই দীপিকা বলেন, ‘‘এমন অনেক মহিলা রয়েছেন, যাঁরা সেভাবে তৈরি নন। তাঁরা তো নিজেদের অসহায় ভাববেন, এক কোণে পড়ে থাকবেন।’’ দীপিকার কথার চটজলদি জবাবে রানি বলেন, ‘‘সেসব মহিলাদের সঙ্গে আমাদের কথা বলতে হবে। তাঁদের বোঝাতে হবে, নিজেদের বদলানোর সময় এসেছে।’’

রানি বোঝাতে চেয়েছেন, নিজেদের রক্ষা করাটা ছোট থেকে মেয়েদের শেখা উচিত। প্রয়োজনে মেয়েদের মার্শাল আর্টও শিখতে হবে। সে সময় দীপিকা প্রশ্ন তোলেন, শুধু মেয়েদেরই কেন আত্মরক্ষার পাঠ নিতে হবে? বাকি অভিনেত্রীরা অনেকটা এক সুরে কথা বললেও, রানির গলায় শোনা যায় ভিন্ন সুর। তারপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ওঠে সমালোচনার ঝড়৷

কেউ বলেন, রানি যেমন ভাবছেন বাস্তবটা তার থেকেও কঠিন। কারও প্রশ্ন, চার মাসের শিশুকন্যার ধর্ষণের খবরও পাওয়া যায়। সেই শিশু কি মার্শাল আর্ট শিখে ধর্ষকদের মারবে? আবার কারও মতে, রানির কথা শোনার পর অনুষ্কা-দীপিকাদের কথা শুনলেই দুই প্রজন্মের ভিন্ন চিন্তাধারার আঁচ পাওয়া যাবে। -সংবাদ প্রতিদিন

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২২:৩৩:১৪