মিস ইংল্যান্ড প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে হিজাব পরা মুসলিম তরুণী!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
প্রথমবারের মতো মিস ইংল্যান্ড প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে উঠেছেন এক মুসলিম তরুণী। আর এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো হিজাব পরা কোনো নারী সুন্দরী প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের মঞ্চে উঠতে যাচ্ছেন।

২০ বছর বয়সী ওই তরুণীর নাম সারাহ ইফতেখার। আইনের ছাত্রী সারাহ, মিস ইংল্যান্ডের খেতাব জিতে গেলে, চীনে অনুষ্ঠেয় আগামী মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি। মঙ্গলবার মিস ইংল্যান্ডের ফাইনালে নটিংহ্যামশায়ারের কেলহ্যাম হলে হিজাব পরে প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন সারা। মঙ্গলবারের এই প্রতিযোগিতায় জিততে আরও ৪৯ জন প্রতিযোগীর সঙ্গে ব্যাপক লড়াই দিতে হবে সারাকে। তবে এই প্রতিযোগিতায় জয়ী হলে চীনে মিস ওয়ার্ল্ডে ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করবেন এই মুসলিম নারী।

নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রায়ই পাকিস্তানি পোশাক পরে ছবি দেয়া সারা বলেন, প্রতিযোগিতার ফাইনালের পৌঁছানো ‘কতটা দারুণ’ তা তিনি বোঝাতে পারবেন না। গেল জুলাইয়ে একটি ট্রফি হাতে নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সেলফি দিয়ে সারা লিখেন, ওয়াও!!! ২০১৮ সালের মিস ইংল্যান্ডে ফাইনালে পৌঁছানো অনুভূতি বোঝাতে পারবো না। আলহামদুল্লিাহ। মিস হাডার্সফিল্ড ২০১৮ সারা বলেন, এটা একটা অবিশ্বাস্য অনুভূতি এবং আমি কখনও ভুলবো না। মিস ইংল্যান্ডের ফাইনালিস্ট হওয়ার পর যে সুবিধাগুলো আমি পেয়েছি, তা কখনও পাওয়ার আশা করিনি এবং আমি এর জন্য সারা জীবন কৃতজ্ঞ থাকবো।

১৬ বছর বয়সে নিজের ব্যবসা চালু করা সারা তার জনপ্রিয়তাকে ব্যবহার যে অর্থ পেয়েছেন তা দিয়ে একটি দাতব্য সংস্থা খুলেছেন। সারা গোফান্ডমি দাতব্য সংস্থাটি দক্ষিণ আমেরিকা, শ্রীলঙ্কা, রাশিয়া, ভিয়েতনামের বাস্তুচ্যুত শিশু এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করে থাকে।

নিজের গোফান্ডমি পেজে তিনি লিখেন, সৌন্দর্যের কোনও সংজ্ঞা হয় না এটা দেখাতেই আমি মিস ইংল্যান্ড ২০১৮ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছি। ওজন, জাতি, বর্ণ বা আকৃতি যাইহোক না কেন সবাই তাদের নিজের মতো সুন্দর। উল্লেখ্য, ইউনিভার্সিটি অব হাডার্সফিল্ডে আইন নিয়ে পড়াশোনা করছেন সারা।

 

০৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:২৫:৫৩