৩০৮টি ব্যর্থ সম্পর্কের পর সঞ্জয়ের জীবনে কে এসেছিলেন?
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট


সঞ্জয় দত্ত। বলি ইন্ডাস্ট্রির এক বর্ণময় চরিত্র। সদ্য তাঁর বায়োপিক ‘সঞ্জু’ তৈরি করেছেন রাজকুমার হিরানি। তবে সে ছবি নিয়েও বহু বিতর্ক তৈরি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, আদৌ সঞ্জয়ের জীবনের সব সত্যি ঘটনা কি দেখাতে পেরেছেন রাজকুমার? সঞ্জয়ের অবশ্য দাবি, তিনি সবটাই বলেছিলেন। তবে কোনটা দেখানো হবে আর কোনটা নয়, সেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পরিচালক।


আর যাই ‘সঞ্জু’তে থাকুক না কেন, সঞ্জয়ের জীবনের ৩০৮টি ব্যর্থ সম্পর্কের কথা ওই ছবিতে স্পষ্ট ভাবে বলা হয়েছে। ৩০৮টি ব্যর্থ সম্পর্কের পরই নাকি সঞ্জয়ের জীবনে এসেছিলেন তাঁর স্ত্রী মান্যতা।

ছবিতে সঞ্জয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন রণবীর কপূর। মান্যতার ভূমিকায় দেখা গিয়েছে দিয়া মির্জাকে। সঞ্জয়-মান্যতার প্রেমের গল্প ছবিতে নেই। কিন্তু মান্যতার সামনেই সঞ্জয় ছবিতে স্বীকার করেছেন, কমপক্ষে ৩০৮ জন মহিলার সঙ্গে নাকি তাঁর শারীরিক সম্পর্ক ছিল!

বলি সূত্রের খবর, সঞ্জয়ের সঙ্গে যখন মান্যতার প্রথম দেখা হয়, তখন মান্যতার নাম ছিল দিলনওয়াজ শেখ। সঞ্জয় সে সময় নাদিয়া দুরানির সঙ্গে ডেট করতেন। সে সময় ইন্ডাস্ট্রিতে কেরিয়ার তৈরির চেষ্টা করছিলেন দিলনওয়াজ। পরিচালক প্রকাশ ঝা তাঁর নাম বদলে রাখেন মান্যতা। তাঁর ‘গঙ্গাজল’ ছবিতে অভিনয় করেন নবাগতা মান্যতা।

সে সময়ই নাকি সঞ্জয়ের সঙ্গে আলাপ হয় মান্যতার। প্রথম দেখার পরই সঞ্জয়ের প্রেমে পড়েন। তাঁর খেয়াল রাখতে শুরু করেন মান্যতা। সঞ্জয়ের পছন্দের খাবার তৈরি করে প্রায়ই বাড়ি পৌঁছে দিতেন তিনি। এর পরই ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে তাঁদের সম্পর্ক।

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০০৮ বিয়ে করেন সঞ্জয়-মান্যতা। ২০১০-এ জন্ম হয় তাঁদের যমজ সন্তান শাহরাহান এবং ইকরার। তবে ৩০৮টি ব্যর্থ সম্পর্ক নিয়ে কখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি সঞ্জয়। বরং তিনি বলেছিলেন, ‘‘সবটাই বলেছি, কতটা দেখাবেন সে দায় পরিচালকের।’’

 

 

 

২৯ জুলাই, ২০১৮ ০১:০২:১০