‘পুরুষরা নারীর শরীর নিয়ন্ত্রণ করে আধিপত্য চায়’
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বলিউড তারকা বিদ্যা বালান
নারীদের মন-সত্তা-শরীরকে নিয়ন্ত্রণ করে পুরুষ আধিপত্য বজায় রাখতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বলিউড তারকা বিদ্যা বালান। ভারতীয় দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, নারীদের শরীর নিয়ে সমাজের এত মাথাব্যথা, কারণ শরীরের ওপর জোর খাটিয়ে মেয়েদের নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

আনন্দবাজারকে দেওয়া বিদ্যা বালানের সেই সাক্ষাৎকারটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো :

প্রশ্ন : জীবনের কোন সাফল্যগুলো দেখে মনে হয় যে, মেয়ে হিসেবে আপনি কোনও অংশে কম নন?

উত্তর : (হেসে) শুধু নিজেকে নয়, চারপাশের মহিলাদের দেখেও সব সময়ে মনে হয়, মেয়েরা কোনও অংশে পুরুষের চেয়ে কম নন। নারীকেন্দ্রিক সিনেমাই আমি বেশি করি। তবে কেউ যখন জিজ্ঞেস করত, কী ভাবে দশ দিক সামলাই, মনের মতো উত্তর পেতাম না। একটা ক্যাম্পেনের অংশ হয়ে যেন উত্তরটা খুঁজে পেয়েছি, ‘একাই একশো।’

প্রশ্ন : এমন কোনও কাজ আছে, যা একা পারেন না?

উত্তর : টেকনোলজি একা সামলাতে পারি না। ল্যাপটপ বলুন, পেনড্রাইভ বলুন... টিভি না চললেও কারও না কারও সাহায্য লাগেই। তবে আগের চেয়ে একটু হলেও উন্নতি হয়েছে (হাসি)।

প্রশ্ন : ঘর সামলানো, রান্নার কাজে আপনার স্বামী (সিদ্ধার্থ রায় কপূর) কি সাহায্য করেন?

উত্তর : রোজের কাজে দরকার পড়ে না। তবে দরকার পড়লে অবশ্যই করে। এই ধরুন, রান্নার লোক আসেনি। ও কিন্তু বেশ উৎসাহ নিয়ে তদারকি করে।

প্রশ্ন : উনি রান্না করতে পারেন?

উত্তর : রান্না করে না। আমিও একেবারে রান্নাবান্না পারি না। কিন্তু দরকার পড়লে সিদ্ধার্থ সাহায্য করে।

প্রশ্ন : ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে অভিনয় করছেন। তার ব্যক্তিত্বের কোন দিকটা আপনাকে অনুপ্রাণিত করে?

উত্তর : ক্ষমতাশীল মহিলাদের কথা বলতে প্রথমেই আমার ইন্দিরা গান্ধীর কথা মনে আসে। রাজনীতি বিশেষ বুঝি না। তবে যে ভাবে উনি নিজেকে বৃহত্তর ক্ষেত্রে তুলে ধরেছিলেন, সেটা অনুপ্রাণিত করে।

প্রশ্ন : মেয়েদের শরীর নিয়ে সমাজের অনেক ধারণা রয়েছে। অভিনেত্রী হিসেবে বিষয়টাকে কী ভাবে দেখেন?

উত্তর : মেয়েদের শরীর নিয়ে সমাজের এত মাথাব্যথা, কারণ শরীরের উপর জোর খাটিয়ে মেয়েদের নিয়ন্ত্রণ করা হয়। নারীর শরীর ‘কালচারাল সিম্বল’ হলে পুরুষের শরীরও সেই কালচারের বাইরে নয়। কিন্তু সমাজ তা শেখায় না। এটা পিতৃতন্ত্রেরই একটা হাতিয়ার। মহিলাদের মন-সত্তা-শরীরকে নিয়ন্ত্রণ করে পুরুষ আধিপত্য বজায় রাখতে চায়।

প্রশ্ন : ‘আইটেম সং’-এ মেয়েদের উপস্থাপনা নিয়ে অনেক সিনিয়র অভিনেত্রীও প্রতিবাদ জানিয়েছেন!

উত্তর : আমি এমন পরিস্থিতির মধ্যে কখনও পড়িনি। এই বিষয়ে মন্তব্য করলে যারা এমন নাচ করেন, তাদের কাজ নিয়ে একটা মতামত দেওয়া হবে। সেটা আমি চাই না। তবে আমার মতে, আইটেম সং সবচেয়ে সহজ নিশানা। বছরের পর বছর ধরে যে ধরনের রোম্যান্টিক গান তৈরি হয়েছে, তাতেও মেয়েরা পণ্যের মতোই। মেয়েদের নিচু করাকে মহৎ করে দেখানো হয়েছে। তবে কিছুটা হলেও চিত্রটা বদলেছে বলে মনে হয়। এখনকার সিনেমাতে মেয়েদের যে ভাবে দেখানো হচ্ছে, সেটা কিন্তু চিরাচরিত মেল গেজ়ের বাইরে।

প্রশ্ন : অভিনেত্রী না হলে কী হতেন?

উত্তর : ভাগ্যিস অভিনেত্রী হয়েছিলাম (জোরে হাসি)! না হলে কী হতাম জানি না। আমার কোনও প্ল্যান বি ছিল না। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

 

২৭ মে, ২০১৮ ০০:৩০:২২