সালমানের পাশে দাঁড়ানোর মাশুল, হুমকি অভিনেত্রীকে
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট


দুই রাত জেলে কাটিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন৷ রাতভর বন্ধুদের সঙ্গে পার্টিও করেছেন সালমান খান৷ এদিকে সলমনের পাশে দাঁড়ানোর খেসারত দিতে হচ্ছে তাঁর সহ-অভিনেত্রীকে৷ ফোন করে তাঁকে লাগাতার হুমকি দিচ্ছে বিষ্ণোই সম্প্রদায়ের মানুষ৷ পাঠানো হচ্ছে অশালীন মেসেজ৷ এই অভিযোগেই পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী কুনিকা সদানন্দ৷

‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ ছবির শুটিংয়ের সময় যাবতীয় ঘটনার সূত্রপাত হয়৷ সেই ছবির শুটিং চলাকালীনই শিকারে গিয়েছিলেন সলমন খান, সইফ আলি খান, সোনালি বেন্দ্রে, নীলম, টাব্বুরা৷ ছবিতে বিশেষ ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন কুনিকা সদানন্দও৷ তাই ২০ বছর বাদে যখন সলমন খানের জেল হেফাজত হয়, প্রতিক্রিয়া দিতে একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের চ্যাট শোয়ে অংশ নিয়েছিলেন কুনিকা৷ সেখানে তিনি বলে বসেন, শিকার তো বিষ্ণোই সম্প্রদায়ের মানুষরাও করে থাকেন৷

অভিযোগ, এরপর থেকেই অভিনেত্রীর অফিসের ফোন নম্বর ও মোবাইলে ক্রমাগত ফোন আসতে থাকে৷ ফোনে হুমকি দেওয়া হয়৷ অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করা হয়৷ মেসেজেও এমনটাই করা হয়৷ অগত্যা পুলিশের দ্বারস্থ হন অভিনেত্রী৷ ৫০৬/৫০৭ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়৷ কোনও সম্প্রদায়ের ভাবাবেগে আঘাত করে ফেলেছেন৷ এর জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চান অভিনেত্রী৷ তবে এও জানিয়ে দেন, ক্ষমা চাওয়ার অর্থ এই নয় যে তিনি ভয় পেয়ে গিয়েছেন৷ ভয় তিনিই কখনও পাননি, পাবেন না৷ অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো তাঁর কর্তব্য৷ ভবিষ্যতেও তেমনটাই করে যাবেন বলে জানান অভিনেত্রী৷ লাগাতার ফোন ও মেসেজ এসে যাচ্ছে তাঁর কাছে৷ এতে তাঁর পরিবারের লোকজনের পাশাপাশি অফিসের কর্মীদেরও প্রচুর অসুবিধা হচ্ছে৷ অবিলম্বে এই জ্বালাতন থেকে মুক্তি চান তিনি৷ পুলিশের কাছে তাঁর আরজি, এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক৷ পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয় পুলিশের পক্ষ থেকে৷ তবে নিজের অসুবিধার কথা শেয়ার করে সাধারণ মানুষের কাছেও পাশে দাঁড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন কুনিকা সদানন্দ৷









 


১০ এপ্রিল, ২০১৮ ১৮:৫১:৪৪