দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান, অবশেষে মুম্বাইয়ে পৌঁছল শ্রীদেবীর মরদেহ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। শেষবারের মতো জন্মভূমিতে ফিরলেন শ্রীদেবী। তবে জীবিত অবস্থায় নয়। বলিউডের ‘চাঁদনি’ ফিরলেন কফিনবন্দি হয়ে। এ শহর আর কখনও পাবে না তাঁর পদস্পর্শ। তাঁর চোখের চমক আর মিষ্টি কণ্ঠস্বর থেকে চিরতরে বঞ্চিত হবে আপামর জনতা। তাই শেষবারের মতো যেন সকলকে বিদায় জানাতে পৌঁছলেন ‘রূপ কি রানি‘।

তাঁর আকস্মিক মৃত্যুটা যতটা চমকে দিয়েছিল সকলকে, ততটাই ঘটনাবহুল ছিল তাঁর মৃত্যু পরবর্তী কার্যকলাপ। শ্রীদেবীর মৃত্যুরহস্যে গত তিন দিনে নানা মোড় নিয়েছে। ময়নাতদন্তে জানা গিয়েছিল, মদ্যপ অবস্থায় জলে ডুবে মৃত্যু হয়েছে অভিনেত্রীর। তবে পরে জানা গিয়েছিল অভিনেত্রীর মাথায় গভীর ক্ষতচিহ্নেরও সন্ধান মিলেছে। ফলে মৃত্যু না হত্যা, সে ধন্ধ ফের জেগে উঠেছিল। পাসপোর্ট আটক করা হয়েছিল অভিনেত্রীর স্বামী বনি কাপুরের। তৃতীয়বারের জন্য তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি খতিয়ে দেখা হচ্ছিল সিসিটিভি ফুটেজও। এই নিয়ে জটিলতা ক্রমশ বাড়ছিল। পুনরায় চলে তদন্ত। প্রয়াত হওয়ার প্রায় ৬০ ঘণ্টা পর কাটে জটিলতা। তদন্ত শেষ করে শ্রীদেবীর মরদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় দুবাই প্রশাসন ও পুলিশ। অনেক কাঠখর পুড়িয়ে তবে শ্রীদেবীর মরদেহ দেশে ফেরাতে পারল তাঁর পরিবার। মুকেশ আম্বানির চাটার্ড বিমানে আনা হয় মরদেহ।

গত শনিবার দেশের বাইরে দুবাইয়ের হোটেলে প্রয়াত হন শ্রীদেবী। তারপর থেকেই তাঁকে শেষবারের মতো দেখতে মুম্বইয়ে তাঁর বাড়ির সামনে ভক্তদের ভিড় জমেছে। দেওর অনিল কাপুরের বাড়িতে একের পর এক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা এসে পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু যাঁকে ঘিরে এত কান্না, শোক, সেই শ্রীদেবীর মরদেহ কখন আসবে, সে ধোঁয়াশা কিছুতেই কাটছিল না। অবশেষে তিনি বাড়ি ফিরেছেন। তবে শেষবারের মতো। তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর পালা শুরু হয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবারটা ভাগ্য বাংলোতেই রাখা হবে তাঁর দেহ। বুধবার সকাল ৯টা ৩০ থেকে ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত মুম্বইয়ের সেলিব্রেশনস স্পোর্টস ক্লাবে থাকবে মরদেহ। সাদা ফুল পছন্দ করতেন তিনি। তাই সাদা ফুলে ঢাকা গাড়িতেই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হবে শ্মশানে। দুপুর ৩ টে ৩০ মিনিটে ভিলে পারলেতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে শ্রীদেবীর। সব ‘সাদমা’ কাটিয়ে চাঁদের দেশেই চলে যাবেন ‘চাঁদনি‘।

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২২:৪৬:১৪