প্রিয়ার মতো এঁরাও ছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘হটকেক’
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
একটা ছোট্ট ক্লিপিংসে চোখের ইশারা, আর তাতেই ঝড় দেশ-বিদেশে৷ সেই ঝড় থুড়ি সাইক্লোনের নাম প্রিয়া প্রকাশ ভারিয়ার৷ রাতারাতি যাঁর জন্য পাগল তামাম পুরুষ-হৃদয়, সেই উইঙ্ক কুইন প্রিয়ার মতোই কিন্তু আরও বেশ কয়েকজন এভাবেই তোলপাড় করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়া৷ তবে শুধু প্রিয়াই নয়, রাতারাতি বিখ্যাতদের তালিকায় আছেন এঁরাও৷

ঢিনচ্যাক পূজা: ঢিনচ্যাক পূজা, নাম তো শুনা হি হোগা! হ্যাঁ শুনে থাকবেনই, কারণ ইউটিউব সেনসেশন চাঁর ভাইরাল হওয়া গানেই বিগ বসে এন্ট্রি নেওয়ার টিকিট জোগাড় করে ফেলেন৷ যদিও তাঁর গান নাকি অনেকের কাছে অত্যাচারের সমান৷ তাই ট্রোলড হতেও বেশি সময় লাগেনি৷ এমনকি তাঁর ইউটিউব চ্যানেলও ডিলিট করে দেওয়া হয়েছিল যদিও পরে সেই সমস্যার সমাধান হয়ে যায়৷ কিন্তু এসবে কি যায় আসে! ফলোয়ার্সের সংখ্যা দিয়েই যায় চেনা…তাই ঢিনচ্যাকের প্রসঙ্গ প্রথমেই উঠে আসে৷

আরশাদ খান: প্রিয়ার চাহনির মতোই এই আরশাদের চোখও বশ করেছিল বহু তরুণীর হৃদয়৷ পেশায় এই আরশাদ খান পাকিস্তানি চাওয়ালা! ১৭ বছরের আরশাদের কিলার লুক রাতারাতি তাঁকে পৌঁছে দেয় প্রত্যেকের ঘরে ঘরে৷ সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তখন শুধু তারই ছবি৷ তাকে নিয়েই গবেষণা৷ তারপর চাওয়ালা থেকে সরাসরি মডেলিং দুনিয়ায়…৷

নেপালি সবজি বিক্রেতা: নাম থেকে ঠিকানা কোনও কিছুর হদিশ নেই, কিন্তু তাঁর দুটো ছবিই ঝড় তুলেছিল সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে৷ নেপালি স্টিল ফটোগ্রাফার রূপচন্দ্র মহার্জনের ফ্রেমে বন্দি হয়েছিল অচেনা সেই সুন্দরী৷ জানা যায়, নেপালেই সবজি বিক্রি করেন এই নেপালি সাইক্লোন!

ডক্টর মাইক: ইনস্টাগ্রামে একটা ছবি পোস্ট করতেই তরুণীদের হার্টথ্রবে পরিণত হয়েছিলেন ইনি। অগণিত মহিলার মনের মণিকোঠায রাতারাতি জায়গা করে নিয়েছিলেন এই চিকিৎসক৷ যাঁর ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ারের সংখ্যাই ছাড়িয়েছে ২৫ লক্ষ৷

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:৫৬:৩২