যে সমস্ত সাহসী পদক্ষেপে বলিপাড়া মাত করেছেন ‘মস্তানি’ দীপিকা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বলিউডে যখন এসেছিলেন বয়স ছিল মাত্র কুড়ি। বিপরীতে ছিলেন খোদ শাহরুখ খান। তখন পেয়েছিলেন ‘বিউটি উইদাউট ব্রেন’-এর তকমা। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে কীভাবে ভেঙেচুরে নিতে হয়, তা বোধহয় বার্থ ডে গার্ল দীপিকা পাড়ুকোনের থেকে ভাল আর কেউ জানেন না। তারই পরিণতি ‘পদ্মাবত’ ওরফে ‘পদ্মাবতী’। যেখানে নিজের বোল্ডেস্ট অবতারে ধরা দিয়েছেন নায়িকা।

মাধুরী দীক্ষিতের কথায় দীপিকার থেকে ভাল ঐতিহাসিক চরিত্র কেউ তুলে ধরতে পারেন না। ‘ঘুমর’-এর সাহস যেমন তিনি দেখাতে পেরেছেন, তেমনই তুলে ধরেছিলেন ‘ককটেল’-এর ভেরোনিকাকে।  সেই প্রথম দর্শকরা অনুভব করেছিলেন দীপিকার অন্দরের অভিনয়ের খিদে। যার জন্য তিনি পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করার সাহস দেখিয়েছিলেন।

তবে অভিনয়ের অনেক আগে থেকেই ক্যামেরার সামনে সাহসী হয়েছেন নায়িকা। কিংফিশার ক্যালেন্ডার থেকে শুরু করে ভোগ, ম্যাক্সিম, ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে সে নমুনা মিলেছে একাধিকবার। কেবল পোশাকে নয় দীপিকার সাহসিকতা প্রতিফলিত হয়েছে তাঁর জীবনের প্রতিটা পদক্ষেপে। যখন বাড়ির অমতে ব্যাডমিন্টন কেরিয়ার ছেড়ে এসেছিলেন ফ্যাশন দুনিয়ায়। স্কুলের পর ছেড়েছিলেন পড়াশোনাও। আবার সকলের সামনে স্বীকার করেছিলেন নিজের মানসিক অবসাদের শিকার হওয়ার কথা।

বলিউডে কেবল আই ক্যান্ডি হয়ে থাকেননি ডিপি। ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’-এর মীনাম্মা যেমন হয়েছেন, তেমনই হয়েছেন ‘ফাইন্ডিং ফেনি’-র অ্যাঞ্জি। আবার তিনিই বিগ বি-র প্রিয় ‘পিকু’।

যে সঞ্জয় লীলা বনশালি তাঁকে ‘সাওয়ারিয়া’ থেকে বাদ দিয়ে সোনম কাপুরকে নিয়েছিলেন। সেই সঞ্জয়ের এখন চোখের মণি তিনি। তিনিই তাঁর রামের লীলা, আবার বাজিরাওয়ের মস্তানি।

ব্যর্থতা সয়েছেন। ভুল করেছেন। মানসিক অবসাদেরও শিকার হয়েছেন। কিন্তু ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। শিখেছেন। নিজেকে নতুন করে তৈরি করেছেন।বডি শেমিংয়ের তীব্র প্রতিবাদও করেছেন। তাই আজ তিনিই এক এবং অদ্বিতীয় ‘পদ্মাবতী’ দীপিকা পাড়ুকোন।জন্মদিনে তাঁকে শুভেচ্ছা।

 

০৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ২৩:১৫:৪২