রোহিঙ্গাদের দুর্দশা নিয়ে কী ভাবছেন এই লাস্যময়ী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
অভিনেত্রী অধরা
জ্বলছে মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ৷ চলছে সেনাবাহিনীর অত্যাচার৷ এর থেকে বাঁচতে পাঁচ লক্ষাধিক মানুষ ঢুকে পড়েছে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম এলাকায়৷ এরা মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিম৷ তাদের নিয়েই ছবি করতে চলছেন পরিচালক অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড। ছবির নাম ‘রোহিঙ্গা’।

ছবিতে একজন সাহসী সাংবাদিকের চোখ দিয়ে পরিচালক রোহিঙ্গাদের জীবন তুলে ধরা হবে। এই সাংবাদিকের ভূমিকায় অভিনয় করছেন অধরা খান। ঢালিউডের এই নবাগতা নায়িকা ‘রোহিঙ্গা’ ছবি নিয়ে বেশ উত্তেজিত৷

রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নিয়ে উদ্বিগ্ন বাংলাদেশ সরকার৷ চিন্তিত রাষ্ট্রসংঘ৷ যেভাবে মায়ানমার সেনার তাড়া খেয়ে তারা বাংলাদেশে ঢুকছে তাতে আলোড়িত আন্তর্জাতিক মহল৷ মায়ানমার সরকারের অভিযোগ, গত ২৪ অগস্ট রোহিঙ্গা জঙ্গি গোষ্ঠী প্রথম হামলা চালিয়েছিল সেনাচৌকিতে৷ তার পরেই রাখাইন প্রদেশে শুরু হয় সেনা অভিযান৷ পাল্টা অভিযোগে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা জানিয়েছে, গণহত্যা, ধর্ষণ সহ মানবতা বিরোধী অপরাধ করেছে মায়ানমারের সেনা৷

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে অধরা জানিয়েছেন, আমার মনে হচ্ছে এই ছবির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের সংকটকে ভালো করে তুলে ধরা যাবে। এখন যেভাবে আমাদের দেশে এসে তারা আশ্রয় নিয়েছে, সেভাবে ’৭১ সালে আমাদের দেশের মানুষ ভারতে আশ্রয় নিয়েছিল।

রোহিঙ্গা ছবিতে কোনও নায়ক নেই৷ অভিনেত্রী অধরা জানিয়েছেন, গল্পটাই ছবির নায়ক। এখানে রোহিঙ্গাদের জীবন কাহিনীকেই প্রাধান্য দিয়ে ছবিটি নির্মাণ করা হচ্ছে। অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড আগে তিনটি ছবি পরিচালনা করেছেন৷ সেই ছবি তিনটির নাম নাচোলের রানী, গঙ্গাযাত্রা, অন্তর্ধান৷

২২ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:০৭:১৯