কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় এইচএসসি পরীক্ষা শুরু সোমবার
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে আগামীকাল সোমবার থেকে উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষা (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। এবার তত্ত্বীয় পরীক্ষা ২ এপ্রিল সোমবার থেকে শুরু হয়ে ১৩ মে রোববার এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ১৪ মে থেকে শুরু হয়ে ২৩ মে শেষ হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে এবারই প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হচ্ছে সিকিউরিটি টেপযুক্ত বিশেষ খাম। পাশাপাশি লটারির মাধ্যমে প্রশ্ন সেট নির্ধারণ করে সকল বোর্ডে অভিন্ন প্রশ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রশাসন ও পুলিশের সমন্বয়ে সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা নিতে সব ধরণের প্রস্তুতি নিয়েছে দেশের ১০টি শিক্ষাবোর্ড।  

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষায় এবার ২শ' ৫৩টি কলেজ থেকে ৯৭ হাজার ৬শ' ৮৪ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য সার্বক্ষণিক কাজ করবে ১০টি বিশেষ টিম ও ৪০টি সাধারণ টিম। প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে এবার প্রথমবারের মতো সিকিউরিটি টেপযুক্ত বিশেষ খাম ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান।

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, প্রশ্নপত্র বিতরণের সময় সময় আমরা একটি বিশেষ খাম ব্যবহার করবো। যে সিকিউরিটি খামে করে গোপনীয় বাহনে করে প্রশ্ন আসবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছার আগে খোলার কোনো ব্যবস্থা নেই।

সিলেট শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ৭১ হাজার ৫শ' ৬৩ জন এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবেন। প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে এবং সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা নিতে বোর্ড কর্তৃপক্ষের ৫টি এবং শিক্ষকদের সমন্বয়ে গঠিত ১৯টি ভিজিলেন্স টিম সার্বক্ষণিক কাজ করবে বলে জানিয়েছেন বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক।

সিলেট শিক্ষাবোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কবির আহমদ বলেন, বিকাশ, রকেট একই  অ্যাকাউন্ট থেকে যদি বার বার টাকা আদান-প্রদান হয় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ স্টেশন বা বোর্ডে জানানোর ব্যবস্থা করতে হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, এবার মাদ্রাসা ও কারিগরিসহ দেশের ১০টি শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪শ' ৫৭ জন পরীক্ষার্থী রয়েছেন।

 


০১ এপ্রিল, ২০১৮ ১৭:৫২:১৮