অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন দুই মার্কিন অর্থনীতিবিদ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
এ বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন দুই অর্থনীতিবিদ উইলিয়াম ডি. নর্ডহাস ও পল এম. রোমার। তাঁরা দু’জনেই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির দীর্ঘমেয়াদি নির্ধারকগুলো নিয়ে গবেষণার জন্য তাঁরা নোবেল পেলেন।

নর্ডহাসের গবেষণা ছিল অর্থনীতির উপর পরিবেশের প্রভাব বিশেষ করে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে। আর রোমার গবেষণার ছিল প্রযুক্তিগত পরিবর্তন কতটুকু গুরুত্ব রাখছে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১৯০১ সাল থেকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু হয়। তবে অর্থনীতিতে নোবেল দেওয়া শুরু হয় ১৯৬৯ সাল থেকে।

এবার ৫০তম বারের মতো এই পুরস্কার ঘোষণা করা হলো। নর্ডহাউস আর রোমারকে পুরস্কৃত করতে গিয়ে  নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে সংঘটিত অর্থনৈতিক ক্ষতির বিষয়গুলো নিরুপণ করতে সমর্থ হয়েছেন নর্ডহাউস।

আর রোমার খুঁজে বের করেছেন, কী করে অর্থনীতিবিদরা প্রবৃদ্ধির ধারাকে গতিশীল রাখতে পারেন। দু’জন মিলে এমন একটি মডেল দাঁড় করিয়েছেন, যা পরিবর্তিত জলবায়ু পরিস্থিতিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার পথ বাতলে দিয়েছে।

সামষ্টিক অর্থনীতিকে তারা এমন একটা পর্যায়ে নিতে সক্ষম হয়েছেন, যেখানে দাঁড়িয়ে বিশ্বের অন্যতম বড় সংকট মোকাবেলার পথ সৃষ্টি হয়েছে। উইলিয়াম ডি. নর্ডহাউস যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। আর পল এম. রোমার অধ্যাপনা করছেন নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির স্টার্ন স্কুল অব বিজনেস-এ

এর আগে চলতি বছরের জন্য শান্তিতে নোবেল পুরস্কারে মনোনিত হয়েছেন কঙ্গোর ধাত্রীবিদ্যাবিশারদ ডেনিস মুকওয়েজি এবং জঙ্গিদের হাতে ধর্ষণের শিকার ইয়াজিদি নারী নাদিয়া মুরাদ। যৌন সহিংসতা ও হয়রানির ব্যাপারে বিশ্বজুড়ে সচেতনতা তৈরির আন্দোলন করে তারা এ সম্মানে ভূষিত হলেন। 

আর নতুন ধরণের রাসায়নিক তৈরি এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প গড়ার পথ দেখিয়ে রসায়নের নোবেল জিতে নিয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন ফ্রান্সেস এইচ আর্নল্ড এবং জর্জ পি স্মিথ ও স্যার গ্রেগরি পি উইনটার।

চিকিৎসায় নোবেল পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানী জেমস. পি. অ্যালিসন ও জাপানের তাসুকু হনজোর। নেতিবাচক ইমিউন নিয়ন্ত্রণে বাধাদানের মাধ্যমে ক্যান্সার থেরাপি আবিষ্কারের জন্য এই দুই চিকিৎসা বিজ্ঞানী যৌথভাবে এ বিশ্ব সম্মানে ভূষিত হলেন।

পদার্থে নোবেল পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পদার্থবিজ্ঞানী আর্থার আশকিন, ফরাসি পদার্থবিদ জেরার্ড ম্যুর এবং কানাডার ডনা স্ট্রিকল্যান্ড। লেজার রশ্মি নিয়ে যুগান্তকারী উদ্ভাবনের স্বীকৃতিস্বরুপ তাঁদেরকে নোবেল পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত করে রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি।

এক জুরির স্বামীর বিরুদ্ধে ওঠা যৌন নিপীড়নের অভিযোগকে কেন্দ্র করে বিতর্কের মধ্যে রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি এবারের সাহিত্যের নোবেল পুরস্কার স্থগিত করেছে।

 

 

০৯ অক্টোবর, ২০১৮ ০৮:০৭:০৭