৪৫ বছরে সাড়ে ১১ হাজার মিলিয়ন মার্কিন ডলার বৈদেশিক সহায়তা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত
স্বাধীনতার পর থেকে ২০১৬ সালের জুন মাস পর্যন্ত দেশের ভৌত অবকাঠামো খাতের উন্নয়নে বৈদেশিক উৎস থেকে ৩ হাজার ৬৭৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থায়ন হয়েছে এবং একই সময়ে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রায় ১১ হাজার ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বৈদেশিক সহায়তা পাওয়া গেছে। বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারদলীয় সদস্য মো. সোহরাব উদ্দিনের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক খাতে ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকার বিভিন্ন দাতা দেশ বা সংস্থা থেকে ঋণ ও অনুদান গ্রহণ করে থাকে। স্বাধীনতার পর থেকে ২০১৬ সালের জুন মাস পর্যন্ত ভৌত অবকাঠামো খাতের উন্নয়নে গৃহীত প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নে বৈদেশিক উৎস হতে মোট ৩ হাজার ৬৭৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থায়ন হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ভৌত অবকাঠামো ছাড়াও অন্যান্য অবকাঠামো উন্নয়ন যেমন বিদ্যুৎ খাত, তেল, গ্যাস ও প্রাকৃতিক সম্পদ খাত, পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী প্রতিষ্ঠান এবং পরিবহনসহ অন্যান্য অবকাঠামো খাতে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে একই সময়ে প্রায় ১১ হাজার ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বৈদেশিক সহায়তা পাওয়া গেছে।

মুহিত আরো জানান, যেসব দেশ ও সংস্থা বাংলাদেশে ভৌত-অবকাঠামো খাতে সহায়তা প্রদান করে থাকে তাদের মধ্যে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি), বিশ্বব্যাংক (আইডিএ), ইসলামি উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি), জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ভারত, রাশিয়া, চীন অন্যতম।

এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, গত ২০০৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের ব্যাংকগুলোর অলস টাকার পরিমাণ ছিল ৬ হাজার ৭৬৭ কোটি টাকা, যা ২০১৭ সালের ৩০ মার্চে এসে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৩৯৬ কোটি টাকা।

০৪ মে, ২০১৭ ০৬:৩০:১৪