ভ্যাট ১৫ শতাংশই থাকছে: অর্থমন্ত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, আগামী অর্থবছরের বাজেটের আগেই ১৫ শতাংশ হার রেখে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করা হবে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এটা নিয়ে নিয়মিত কাজ করছে, ভ্যাট আইন নিয়ে আমি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আরো একবার বৈঠক করবো। 

সচিবালয়ে ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচারাল অর্গানাইজেশন অফ ইউনাইটেড ন্যাশনস-এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি  মিজ সুসান লরাইন লুটজের নের্তৃত্বে একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাৎশেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) নতুন ভ্যাট আইন নিয়ে  কাজ করছে। এ আইন বাস্তবায়নের আগে আমি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আরো একবার বৈঠক করবো।

ব্যবসায়ীরা ভ্যাট ৭ শতাংশ করার দাবি জানালেও আমি ১৫ শতাংশ করার পক্ষেই এখনো আছি। আশা করি, ব্যবসায়ীরা এটা মেনে নেবে। আগে তারা অভ্যস্ত হোক, পরবর্তী সময়ে ভিন্ন ভিন্ন হারে ভ্যাট নির্ধারণ করার চিন্তা-ভাবনা করা যাবে। ৪০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব ঘাটতি হতে পারে- সম্প্রতি বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি )-এর এ আশংকার বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, আট বছরে কখনো এমনটা হয়নি। এবারো হবে না। সিপিডি কোথা থেকে এ তথ্য পায় তারাই জানে, আমি জানি না। রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা সবসময় অর্জিত হয় না। কিছুটা কম হয়।

তিনি বলেন, এনবিআর চেষ্টা করছে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করার জন্যে। আশা করছি, তারা এটা পারবে। এবার  আশার বিষয় হচ্ছে করদাতার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। আর এদের মধ্যে বেশির ভাগই তরুণ। অর্থমন্ত্রী বলেন, ফাও বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে অন্যতম। ফাও প্রতিষ্ঠার পর থেকেই আমাদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিভিন্ন খাতে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে কৃষি, পশুসম্পদ, বনায়ন, পরিবেশ, প্রাকৃতিক সম্পদ, পল্লী উন্নয়নসহ বিভিন্ন খাতে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে এ সংস্থা।

২৪ জানুয়ারি, ২০১৭ ১৯:৩২:১৮