সুইফট হ্যাকিংয়ে তৎপর নতুন গ্রুপ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় উৎসাহিত হয়ে নতুন একটি গ্রুপ আন্তর্জাতিক অর্থ লেনদেন নেটওয়ার্ক সুইফট হ্যাকের তৎপরতা শুরু করেছে। সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিষ্ঠান সিমানটেক জানিয়েছে, নতুন একটি গ্রুপ সুইফট মেসেজ মনিটরের একটি টুল তৈরি করেছে যা সারা বিশ্বে সুইফট কোডের মাধ্যমে অর্থ লেনদেনের বার্তা পযবেক্ষণ করে। এখান থেকে ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নাম্বার, পাসওয়ার্ড এবং প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করে তারা।

এরা আক্রান্ত কম্পিউটারের হার্ডডিস্কের ৫১২ মেগাবাইট পযন্ত তথ্য ওভাররাইট করে ফেলতে পারে। ফলে কাজ শেষ করে চলে যাওয়ার পর ওই কম্পিউটারে তাদের সব তথ্য মুছে দিতে পারে। এ কারণে বড় ধরনের চুরি হযে যাওযার পর টের পেলেও হ্যাকারদের শনাক্ত করা প্রায় অসম্ভব হবে।

সিমানটেক বলছে, এই টুলটি অডিনাফ (Odinaff) গ্রুপের ম্যালওয়ারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। চলতি বছরের শুরু থেকেই এরা সারা বিশ্বের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে টার্গেট করছে। অডিনাফ একটি বিশেষ ট্রোজান ম্যালওয়ারেরও নাম। টার্গেটেড কম্পিটারে ঘাপটি মেরে থাকার জন্য হ্যাকাররা এটি ব্যবহার করে।

গত মঙ্গলবার একটি ব্লগে সিমানটেক জানায়, চলতি বছরের শুরুর দিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ অ্যাকাউন্ট থেকে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি করে নিয়ে যাওয়া এই ধরনের অডিনাফ আক্রমণের একটি উদাহরণ। তবে সেটি ছিল ল্যাজারাস (Lazarus) গ্রুপের আক্রমণ।

শুধু তাই নয় অডিনাফ এবং ল্যাজারাসের আক্রমণের মধ্যে কোনো পারস্পরিক সম্পর্ক নেই। তাছাড়া Trojan.Banswift এর সঙ্গেও এ দুটির কোনো মিল নেই।

চলতি বছরের শুরুতে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ কমপক্ষে চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সুইফট পেমেন্ট সিস্টেম হ্যাকিংয়ের কবলে পড়েছিল। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তারা সফল হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে একশ কোটি ডলার চুরির করার চেষ্টা করলেও শেষ পযন্ত ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার নিয়ে যেতে সক্ষম হয় তারা।

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:১৬:১৬