'আমি লজ্জিত'
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
এফবিসিসিআইর সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ বলেছেন, অর্থমন্ত্রীকে আমরা ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে ৪৪৭টি প্রস্তাব দিয়েছিলাম। এসময় সেখানে এনবিআর চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও দীর্ঘ চার মাস আমরা এনবিআরের সঙ্গে আলোচনা করেছি। তার মধ্যে মাত্র ৫৩টি রাখা হয়েছে। শতকরা হিসাবে ৯০ শতাংশই রাখা হয়নি। এজন্য এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি লজ্জিত। কেন রাখা হয়নি, তার কারণও বলেনি এনবিআর। তাদেরকে অবশ্যই কারণ বলতে হবে। আজ শনিবার মতিঝিলের এফবিসিসিআইয়ের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন। 

একইসঙ্গে আগামীতে প্রাক-বাজেট আলোচনায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড(এনবিআর) এর সঙ্গে আলোচনায় বসবে কি-না তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠনটি।কারণ হিসেবে তারা বলছে, ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করার পরে, তা যদি না রাখা হয়, তাহলে আলোচনা করে লাভ কি।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি বলেন, আমরা চার মাস ধরে খেটেখুটে এসব বাজেট প্রস্তাব তৈরি করেছি। সেগুলো ছাপিয়ে বই আকারে এনবিআরের কাছে অনুষ্ঠান করে জমা দিয়েছি। আমাদের এ কষ্ট বৃথা গেল। তাদের সঙ্গে আমরা আলোচনা না করলেও এর চেয়ে বেশি বাস্তবায়ন হতো।

সংগঠনটির সভাপতি বলেন, 'এবারের বাজেট খুব কঠিন হয়েছে। এনবিআরের সঙ্গে অনেক আলোচনা হয়েছে। কিন্তু এনবিআর ব্যবসায়ীদের দাবির মাত্র ১১ শতাংশ রেখেছে। এমন কমপ্লিকেটেড বাজেট ইহজগতে আর পাইনি।'

তিনি বলেন, 'আমরা হাওয়ার ওপরে কোনো প্রস্তাব দেইনি। এনবিআর চার মাসে আমাদের পেটের খবর নিলো, পরে আমাদের পেটেই ছুরি চালালো। আমরা বই আকারে প্রস্তাব দিলাম, তারা কিছুই রাখলো না।'

ক্ষোভ প্রকাশ করে মাতলুব আহমাদ বলেন, এমন পরিস্থিতিতে আগামী বছর বাজেট আলোচনায় যাব কি যাব না তা নিয়ে চিন্তা করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের প্রথম সহসভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, পরিচালক আবু মোতালেব, দোকান মালিক সমিতির সভাপতি এসএ কাদের কিরণ প্রমুখ।

১১ জুন, ২০১৬ ২২:১৬:৫৩