কেশবপুরে সরকারি রাস্তার কয়েক লাখ টাকার গাছ জব্দ
জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর(যশোর)
অ+ অ-প্রিন্ট
কেশবপুরে সরকারি রাস্তার কয়েক লাখ টাকার গাছ কর্তনের সময় উপজেলা সহকারি কমিশনারের (ভূমি) নির্দেশে জব্দ করা হয়েছে। গত রোববার উপজেলার গোপসেনা মালোপাড়া সড়কের পাশ থেকে কর্তনকৃত ১১টি গাছ জব্দ করা হয়। 

জানা গেছে, উপজেলার গোপসেনা মালোপাড়া সড়কের কানা পুকুর নামক দীঘির পাশ দিয়ে মাঠের ফসল আনা নেয়ার জন্যে একটি সরকারি রাস্তা রয়েছে। গ্রামবাসি দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি ব্যবহার করে আসছেন। গোপসেনা গ্রামের ৮০ বছরের বৃদ্ধ আমীর আলী খা জানান, দীঘির পাড় দিয়ে ৪০/৪৫ বছর আগে ২৫/৩০টি শিশু ও মেহগনি গাছ রোপণ করা হয়। লাখ লাখ টাকার ওই গাছ দখল শর্তে একই গ্রামের আরশাদ আলী খা ভোগ করে আসছিলেন। আরশাদ আলী খা গাছগুলি বিক্রি করে দেন কাঠ ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেনের কাছে। ২৬ এপ্রিল থেকে ওই ব্যবসায়ী গাছ কাটা শুরু করেন। এ সময় এলাকাবাসি উপজেলা সহকারি কমিশনারের (ভূমি) কাছে অভিযোগ করেন। ২৭ এপ্রিল উপজেলা সহকারি কমিশনারের (ভূমি) নির্দেশনা পেয়ে সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন তহশীলদার আব্দুল খালেক সরেজমিনে গিয়ে গাছ কাটা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু এ সবের কোন কর্ণপাত না করে ওই ব্যবসায়ী গাছ কাটা অব্যাহত রাখেন। খবর পেয়ে পুনরায় ওই তহশীলদার ১২টি কাটা গাছের লগ জব্দ করে। 

এ ব্যাপারে গাছের মালিকানা দাবি করে আরশাদ আলী খা বলেন, ওই খান দিয়ে যে সরকারি রাস্তা ছিল তা দীঘিতে বিলীন হয়ে গেছে। তাঁর জমিতে লাগানো গাছ তিনি ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন।

সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন তহশীলদার আব্দুল খালেক বলেন, এলাকাবাসি ওই গাছগুলি রাস্তার বলে দাবি করছে। সে কারণে কর্তনকৃত কাঠ জব্দ করা হয়েছে। রাস্তার সীমানা নির্ধারণে সরকারি সার্ভেয়ার দ্বারা মাপা হবে। যদি গাছ রাস্তার ভেতর থাকে তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

০১ মে, ২০১৯ ০৯:২৩:৪৫