মহাদেবপুরে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী-স্ত্রী সন্তানসহ গ্রেফতার ৭
মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট


নওগাঁর মহাদেবপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানসহ ৭ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গত বুধবার রাতে উপজেলার উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের শিবরামপুর গ্রামে এ হত্যাকান্ডটি ঘটে। মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে বুধবার রাত প্রায় সাড়ে ৯টার দিকে ওই গ্রামের সামছুল হকের ছেলে জহুরুল ইসলাম (৩৫) তার নিজ বাড়ীর খলিয়ানে বসে ছিল। প্রতিবেশী মোশারফ হোসেনের ছেলে আশরাফুল ইসলাম বাচ্চু টর্চ লাইটের আলো দেয় জহুরুল ইসলামের শরীরে । এ সময় শরীরে টর্চের আলো দেয়াকে কেন্দ্র করে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় আশরাফুল ইসলাম বাচ্চু ও তার পরিবারের লোকজনসহ ৯ জন  এসে জহুরুল ইসলামকে লাঠি ও দেশী অস্ত্র শস্ত্র দিয়ে বেধরক মারপিট করে। এতে করে সে গুরুতর জখম হয়। তাকে মহাদেবপুর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জহুরুলকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে আশরাফুল ইসলামের পরিবারের লোকজনসহ ৭ জনকে তাদের নিজ বাড়িতে তালা দিয়ে আটকে রেখে মহাদেবপুর থানা পুলিশকে খবর দেয়। খরব পেয়ে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেনসহ সঙ্গীওফোর্স ঘটনাস্থল থেকে আশরাফুল ইসলামসহ ৭ জনকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের আশরাফুল ইসলাম বাচ্চু তার স্ত্রী কুলছুম বেগম, তার পিতা মোশারফ হোসেন, মাতা ফাতেমা বেগম, ভাই মিলন হোসেন, মাহবুব আলম, ও মান্দা উপজেলার কুসুম্বা দেওয়ান পাড়া গ্রামের লজের আলীর ছেলে আল-মামুন সরকারকে পুলিশ গ্রেফতার করেন। এ বিষয়ে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মৃত জহুরুল ইসলামের পিতা সামছুল হক বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মহাদেবপুর সার্কেল) আবু সালে মোঃ আশরাফুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন।


২৭ এপ্রিল, ২০১৯ ১০:০৫:০৪