খুলনার চার উপজেলায় নৌকার হার
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
 ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে খুলনার অধিকাংশ উপজেলায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন। খুলনার ৬টি উপজেলার মধ্যে শুধুমাত্র রূপসা ও পাইকগাছা উপজেলায় নৌকার প্রার্থী জয়লাভ করেছেন। অপরদিকে তেরখাদা, দাকোপ, কয়রা ও দিঘলিয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। উল্লেখ্য, গত রবিবার খুলনা জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে ৮টিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরমধ্যে ৬টিতে চেয়ারম্যান পদে ভোট হয়। এর আগে বটিয়াঘাটা উপজেলায় আওয়ামী লীগের আশরাফুল আলম খান ও ফুলতলা উপজেলায় নৌকা প্রতীকের মো. আকরাম হোসেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ডুমুরিয়া উপজেলায় আদালতের নির্দেশে নির্বাচন স্থগিত রয়েছে।

বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী, কয়রা উপজেলায় আনারস প্রতীকে ৪৪ হাজার ২৭৭ ভোট পেয়ে এসএম শফিকুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে জি এম মহসিন রেজা পেয়েছেন ৩৮ হাজার ৮২৯ ভোট।

তেরখাদা উপজেলায় দোয়াত কলম প্রতীকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শহিদুল ইসলাম ৩২ হাজার ৫৩৮ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু পেয়েছেন ১৬ হাজার ৩০ ভোট।

দাকোপ উপজেলায় চিংড়ি মাছ প্রতীকে ৩১ হাজার ৭৬৮৭ ভোট পেয়ে মুনসুর আলী খান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে শেখ আবুল হোসেন পেয়েছেন ২৭ হাজার ৮৮১ ভোট।

দিঘলিয়া উপজেলায় আনারস প্রতীকে শেখ মারুফুল ইসলাম ১৭ হাজার ৮৬৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি হয়েছেন নৌকা প্রতীকের খান নজরুল ইসলাম পেয়েছেন ১৬ হাজার ৩১ ভোট।  রূপসা উপজেলায় নৌকা প্রতীকে কামাল উদ্দিন বাদশা ২৯ হাজার ১৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকে শেখ আলী আকবার পেয়েছেন ১২ হাজার ৯৫৭ ভোট।

পাইকগাছা উপজেলায় নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন গাজী মোহাম্মদ আলী। তিনি পেয়েছেন ৩৪ হাজার ১৯৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোটর সাইকেল প্রতীকের শেখ মনিরুল ইসলাম পেয়েছেন ১৭ হাজার ৩৫৯ ভোট।

০১ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৪৬:০৯