বাগেরহাটে আড়াই মাসের শিশু চুরির ঘটনায় আটক ৫
বাগেরহাট প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ঘুমন্ত শিশু চুরি যাওয়ার তিনদিন পরও খোঁজ মেলেনি শিশুটির।তবে চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। চুরির সময় ওই শিশুর পিতা সোহাগ হাওলাদারের নেওয়া মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করেছে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নিশানঘাট এলাকায় সন্দেহভাজন হৃদয়ের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে, শিশুর বাবা সোহাগ হাওলাদের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। পরে মাটি খুঁড়ে চেতনানাশক ওষুধ, স্প্রে ও চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামও পাওয়া যায়।  এ সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হৃদয়ের মা মোয়াজ্জেম চাপরাশীর স্ত্রী নাছিমা বেগম(৫২), বোন আবির আক্তার (১৪), হৃদয়ের চাচাতো ভাই সোবাহান চাপরাশীর ছেলে মহিউদ্দিন চাপরাশী (৩৫), রশিদ চাপরাশীর ছেলে ফায়জুল চাপরাশী (২৫) ও রুবেলকে (৩০) আটক করে পুলিশ।। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হৃদয় এক শিশুকে বাড়ি নিয়ে এসেছিলো বলে জানায় তার মা। হৃদয়কে আটকের পাশাপাশি শিশুকে উদ্ধারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

এছাড়াও হৃদয় চাপরাশীর বাড়িতে মাটি খুড়ে চেতনা নাশক স্প্রে, গ্যাস কাটার, বিভিন্ন ধরনের ওষুধ, গ্যাস পাইপ, গ্যাস সিলিন্ডারসহ চুরির কাজে ব্যবহৃত অনেক মালামাল উদ্ধার করে পুলিশ। এবং মঙ্গলবার ভোররাতে অপরাধীদের ব্যবহৃত একটি নাম্বার বিহীন টিভিএস মটর সাইকেল উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে মঙ্গলবার থেকে হৃদয় চাপরাশি পলাতক রয়েছে।

এদিকে ছেলেকে হারিয়ে দিশেহারা পিতা-মাতা। যে কোনও মূল্যে কোলের সন্তানকে ফিরে পেতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেছেন আব্দুল্লাহর পিতা-মাতা সোহাগ ও রেশমা।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ইতোমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। আটকদের তথ্যের ভিত্তিতে শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য পুলিশের তিনটি টিম কাজ করছে।

 

১৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০৬:১৪