খুলনায় দুইটি প্রতিষ্ঠানকে চিংড়ি ক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
খুলনায় পুশ চিংড়ি ক্রয়ের অভিযোগে ন্যাশনাল সী ফুড এবং অর্গানিক সী ফুডকে ১৫দিনের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। ফলে এ দুটি প্রতিষ্ঠান গতকাল সোমবার থেকে ১৫দিন চিংড়ি ক্রয় করতে পারবে না। রোববার বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশনের এক সভায় কঠোর হুঁশিয়ারী ও নিষেধাজ্ঞার ওই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সূত্র জানায়, চিংড়িতে জেলি পুশ করার অভিযোগে ন্যাশনাল সি ফুড নামে একটি চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।গত রোববার বিকেলে রূপসা ঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন খুলনা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন।

তিনি জানান, গোপন সূত্রের ভিত্তিতে রূপসার ন্যাশনাল সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনার সময় সেখানে জেলি পুশ ও অপদ্রব্য মিশ্রিত আনুমানিক ১ হাজার ৮০ কেজি চিংড়ি পাওয়া যায়। ন্যাশনাল সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অপদ্রব্য মিশ্রিত ও ভেজাল চিংড়ি রাখার জন্য ৫০হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং নগদ আদায় করা হয়।

সূত্র জানায়, ওই পুশকৃত চিংড়ি প্রথমে রিসিভ করে অর্গানিক সী ফুড। অর্গানিক সী ফুড পুশকৃত চিংড়িগুলো রিসিভ করার পরে ন্যাশনাল সী ফুড নামক প্রতিষ্ঠানে চিংড়িগুলো লুকিয়ে রাখে। পুশকৃত চিংড়ি ক্রয়ে ন্যাশনাল সী ফুড ও অর্গানিক সী ফুডে জড়িত থাকা এবং ৫০হাজার টাকা জরিমানা করায় অন্যান্য চিংড়ি প্রক্রিয়াজাত কোম্পানীর মালিকরা অপমান বোধ ও মর্মাহত হন। বিষয়টি নিয়ে ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভা থেকে কঠোর হুঁশিয়ারী ও নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়। একটি সূত্র জানায়, কতিপয় চিংড়ি প্রক্রিয়াজাত কোম্পানীর মালিকের অসততার কারণে চিংড়িতে পুশ বন্ধ করা যাচ্ছে না। ফলে যে সকল সৎ মালিকরা রয়েছেন তারা এ ব্যবসা করতে গিয়ে দারুণভাবে লজ্জিত হচ্ছেন। দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম প্রধান অর্থনৈতিক খাত হিসেবে চিংড়ি ব্যবসার সুনাম কতিপয় অসাধু মালিকের কারণে নষ্ট হচ্ছে। চিংড়ি শিল্পকে ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভবিষ্যতে যদি কোন প্রতিষ্ঠানে অপদ্রব্য পুশকৃত চিংড়ি ধরা পড়ে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ওই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পাশাপাশি বিষয়টি সরকারের উচ্চ পর্যায়ে জানানো হবে। ফলে সরকারের পক্ষ থেকে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানা গেছে।

চিংড়িতে পুশের ঘটনায় ন্যাশনাল সী ফুড ও অর্গানিক সী ফুডের বিরুদ্ধে ১৫দিনের নিষেধাজ্ঞার বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টার্স এসোসিশেনের সভাপতি কাজী বেলায়েত হোসেন বলেন, গত ১৩ ফেব্রুয়ারী থেকে এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কারখানায় অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। চিংড়ি শিল্পের ভাবমূর্তি নষ্ট করে কেউ ব্যবসা পরিচালনার চেষ্টা করলে সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিশ্ব বাজারে চিংড়ির সুনাম কোনভাবেই নষ্ট হতে দেয়া হবে না।

 

 

 

 

 

 

 

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৫৬:৪৯