প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কিশোরীকে ব্লেড দিয়ে জখম
বরিশাল প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট


প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বরিশালের গৌরনদীতে এক কিশোরীকে ব্লেড দিয়ে গালসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গা কেটে জখম করেছে ফয়সাল বেপারী নামে এক বখাটে। এ ঘটনায় আহত খাদিজা আক্তারকে (১৭) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পিঙ্গলাকাঠি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গৌরনদী থানা পুলিশের এসআই তৌহিদুজ্জামান বলেন, পারিবারিক কোন্দলের কারণে কয়েক বছর আগে খাদিজার বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ ঘটে। পরে মা হাসি বেগম অন্যত্র বিয়ে করেন। খাদিজা থাকত পিঙ্গলাকাঠি এলাকায় তার নানা আকুব আলীর বাড়িতে। অর্থের অভাবে এসএসসি পাসের পর খাদিজা আর লেখাপড়ার সুযোগ পায়নি। দরিদ্র নানার সংসারে প্রাইভেট পড়িয়ে টাকা দিত খাদিজা।

প্রাইভেট পড়াতে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই তাকে উত্ত্যক্ত করত ফয়সাল বেপারী। নিষেধ করলে উত্ত্যক্তের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় ফয়সাল। ফয়সালের বাবা-মাকে বিষয়টি জানালে গালমন্দ দিয়ে খাদিজাকে তাড়িয়ে দেয়। সোমবার রাত ৯টার দিকে খাদিজা বাসায় ফেরার পথে প্রেমের প্রস্তাব দেয় ফয়সাল। প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলে ব্লেড দিয়ে খাদিজার গালসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে জখম করা হয়।

এ ঘটনার পর অভিযুক্তের বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। তবে উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান ফয়সাল। এ ঘটনার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফয়সালের বাবা ইউনুছ বেপারী ও মা কাজলী বেগমকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

খাদিজার গালে সাতটি সেলাই দেয়া হয়েছে এবং তার শরীরের ক্ষত সারতে অনেক দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার মো. মাজেদুল হক কাওছার।


১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৯:৫৫:৩০