‘প্রেমের কারণে ঘরে বন্দি’ দুই বছর
দিনাজপুর প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দুই বছর ধরে ঘরে আবদ্ধ থাকা এক কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার বিনোদনগর ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেশীদের জানায়, কথিত প্রেমের কারণে মেয়েটিকে অভিভাবক দুই বছর যাবত ঘরের মধ্যে আটক রেখেছিল। এতে সে মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। ২০১৭ সালে এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়ার পর তাকে আর বাহিরে দেখা য়ায়নি।  বিষয়টি স্থানীয়দের মাধ্যমে উপজেলা প্রশাসন জানতে পারে। পরে নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মশিউর রহমানের নেতৃত্বে থানা-পুলিশের সহায়তায় গত বুধবার সন্ধায় ওই ছাত্রীকে তার নিজ বাড়ি থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছে ভর্তি করাকালে তার শরীরে দুর্গন্ধ ছিল এবং সে মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ্য ছিল। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে তাকে আটক রাখা হয় নাই। তবে সে অসুস্থ্য ছিল চিকিৎসা করানো হচ্ছিল। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে সরকারি কোনো হাসপাতালে বা বড় কোনো চিকিৎসকের কাছে তার চিকিৎসা সম্ভব হয়নি।

এদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তার চিকিৎসার পর উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য পরাশোনার পাশাপাশি স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে সকল ব্যবস্থা প্রশাসন গ্রহণ করবে।

০৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫৭:৫৭