আগৈলঝাড়ায় পানির অভাবে খাল শুকিয়ে ২শ একর জমির চাষাবাদ বন্ধ
আঞ্চলিক প্রতিনিধি, বরিশাল
অ+ অ-প্রিন্ট
চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে পানি সেচ দিতে না পেরে আগৈলঝাড়ার গৈলা ইউনিয়নের তিনটি ইরি ব্লকের অন্তত ২শ একর জমির চাষা বন্ধ রয়েছে। ফলে ওই সকল ব্লকের জমির মালিক ও চাষিরা তাদের পরিবারের খাদ্য যোগান নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পরেছেন। 

সংশ্লিষ্ঠ ক্ষতিগ্রস্থ চাষিরা জানান, গৈলা ইউনিয়নের রথখোলা থেকে ভদ্রপাড়া পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার খাল ভরাট হয়ে গেছে। ফলে সেচের জন্য পানির অভাবে গৈলা গ্রামের ইরি ব্লক ম্যানেজার সিরাজ সরদার, শুকলাল মন্ডলের ব্লকের জমি চাষাবাদ বন্ধ রয়েছে। এর সাথে চলতি মৌসুমে একই এলাকার আরেক ব্লক ম্যানেজার সেলিম সরদারেরও ইরি ব্লকের জমিতে পানির অভাবে চাষাবাদ করতে পারছে না। স্যালো মেশিন ও পাশ্ববর্তি পুকুরের পানি দিয়ে কিছু জমি চাষ করলেও উল্লেখিত ব্লকের দুই শতাধিক চাষিরা তাদের জমি চাষ করতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের পরিবার সদস্যদের সারা বছরের খাদ্য সংকট নিয়ে চরম উদ্বিগ্ন হয়ে পরেছেন। 

এছাড়াও ওই এলকার আশপাশের ব্লকগুলোর খাল শুকিয়ে পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। এ কারণে উপজেলা কৃষি অফিসের ধার্যকৃত উৎপাদনের লক্ষমাত্রা ধরে রাখা সম্ভব হবে না। 

ব্লকের দ্বায়িত্বে থাকা গৈলা ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা জাফর ইকবাল খালে পানি সংকটের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তার আওতায় শুধু মাত্র ৭ হেক্টরের জমির চাষাবাদ বন্ধ রয়েছে। 

এব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. নাসির উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, চাষের সময় প্রধান খালে বাঁধ দেয়া হলেও তা কেটে দেয়া হয়েছে। পলি পরে খাল ভরাট হওয়ায় খাল পুন খননের প্রয়োজনের কথা উল্লেখ করে ওই এলাকা প্রায় ৫০একর জমিতে চাষাবাদ হচ্ছে না বলে স্বীকার করেন তিনি।

০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:০৫:০৫