‘আ.লীগ কইরা আমার স্বামীরে জীবন দিতে হইলো’
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
ময়মনসিংহের নান্দাইলে মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোর্শেদ আলীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ হত্যাকাণ্ডের জেরে বেশ কয়েকটি বাড়ি ও কানুরামপুর বাজারের দোকানপাটে আগুন দেয় উত্তেজিত জনতা। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, শুক্রবার (০১ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১০টার দিকে নান্দাইলের মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপিত মোর্শেদ আলী মোটরসাইকেলে কানুরামপুর বাজার থেকে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। বাড়ির কাছকাছি পৌঁছালে একদল দুর্বৃত্ত গতিরোধ করে তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে ধানক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পুর্বশত্রুতার জেরে এই হত্যাকাণ্ড বলে দাবি পরিবারের। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি স্বজন ও এলাকাবাসীর।

নিহত মোর্শেদ আলীর স্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কইরা আজকে আমার স্বামীরে জীবন দিতে হইলো, তাও নৃশংসভাবে।’ 

এ হত্যাকাণ্ডের জেরে মোর্শেদের লোকজন বেশ কয়েকটি বাড়িতে ও কানুরামপুর বাজারে দোকানপাটে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গেলেও উত্তেজিত জনতার বাধায় আগুন নেভানোর কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়। পরে নান্দাইল ও ঈশ্বরগঞ্জের তিনটি ইউনিট তিনঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘পুলিশের সহযোগিতায় আমরা আগুন নির্বাপণ করি। আগুন নিয়ন্ত্রণে, এখন ড্যাম্পিং এর কাজ চলছে।  এদিকে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে নুরুল ইসলাম নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘তার ভাইয়ের কাজ থেকে আমরা অনেক তথ্য পেয়েছি। আমাদের অভিযান চলমান আছে। আমরা জাস্টিস নিশ্চিত করবো ইনশাল্লাহ।’

নিহত মোর্শেদ আলী গত প্রায় ২৫ বছর ধরে মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন।  

 

০২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১১:৩৫:০৫