খুলনার বইমেলায় থাকছে ধূমপানমুক্ত এলাকা
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
পয়লা ফেব্রুয়ারি হতে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত খুলনা বিভাগীয় সরকারি গণগ্রন্থাগার প্রাঙ্গণে একুশে বইমেলা ও জেলা বইমেলার স্টল বরাদ্দ শেষ।  প্রতিটি স্টলের স্টলমূল্য ছয় হাজার এবং একই সাথে একাধিক স্টল বরাদ্দের ক্ষেত্রে প্রতিটি স্টল সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা করে নেয়া হয় বলে মেলার আয়োজক কমিটির সূত্রটি জানিয়েছে। এবার মেলায় সর্বমোট ৮০টি স্টল থাকবে বলেও সূত্রটি জানায়।

এদিকে মাসব্যাপী বইমেলা উপলক্ষে প্রচার উপ-কমিটির সভা গত মঙ্গলবার সকালে কমিটির আহবায়ক ও খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের সিনিয়র তথ্য অফিসার জিনাত আরা আহমেদের সভাপতিত্বে তাঁর অফিস কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বইমেলার ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে এবং পাঠক আকৃষ্ট করতে গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশনের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

খুলনা পিআইডি, বাংলাদেশ বেতার, জেলা তথ্য অফিস, অনলাইন পত্রিকা, সকল স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় মেলার সংবাদ প্রচারের আহবান জানানো হয়। মেলা প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের পৃথক বসার জায়গা নির্ধারণ, কম্পিউটার ও ইন্টারনেটের ব্যবস্থা রাখা, সাংবাদিকদের সংবাদ সংগ্রহে চাহিদা মোতাবেক তথ্য সরবরাহসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা, প্রতিদিন মেলার ছবিসহ প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠানো এবং প্রতিদিন বই বিক্রির হিসাব ও নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের তালিকা সরবরাহের উদ্যোগ নিতে সদস্য-সচিবের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

সভায় প্রচার উপ-কমিটির সদস্য খুলনা বিভাগীয় সরকারি গণগ্রন্থাগারের উপ-পরিচালক ড. মোঃ আহসান উল্যাহ, বেতারের উপ-আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ শাহিদুল ইসলাম, জেলা তথ্য অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ আল-মাসুদ, পূর্বাঞ্চলের মফস্বল সম্পাদক অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা সিন্দাইনী, পূর্বাঞ্চলের ষ্টাফ রিপোর্টার এইচ এম আলাউদ্দিন, সময়ের খবরের মোহাম্মদ মিলন, তথ্যের বার্তা সম্পাদক এস এম নূর হাসান জনি ও প্রবাহের খলিলুর রহমান সুমন উপস্থিত ছিলেন।

বইমেলার সূত্রটি জানায়, ছুটির দিন ব্যতীত প্রতিদিন বিকেল তিনটা থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত চলবে। তবে ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত চলবে। মেলা প্রাঙ্গণে প্রতিদিন বিকেলে আলোচনা সভা ও সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে। বইমেলা প্রাঙ্গণ ধুমপানমুক্ত এলাকা হিসেবে গণ্য হবে। শিশুদের জন্য উপস্থিত বক্তৃতা, বিতর্ক, আবৃত্তি, চিত্রাংকন, সঙ্গীত ও বইপাঠ প্রতিযোগিতার আয়োজন থাকবে। শিক্ষার্থীদের জন্য বই পাঠের ব্যবস্থাও থাকবে।

 

৩১ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩১:০৯